national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মধ্যপ্রদেশে একেবারে তিরে এসে তরী ডুবেছে বিজেপির। সব আয়োজন তৈরি করে রাখা হলেও শেষ মুহূর্তে বাতিল হয়েছে বিধানসভার আস্থাভোট। শুধু তাই নয় আগামী ২৬ মার্চ পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে মধ্যপ্রদেশের বিধানসভা অধিবেশন। এহেন পরিস্থিতিতেই মধ্যেপ্রদেশে আস্থাভোট চেয়ে শীর্ষ আদালতে আবেদন করল বিজেপি। আগামী মঙ্গলবার হবে এই আবেদনের শুনানি।

এদিন শীর্ষ আদালতের কাছে বিজেপির তরফে আবেদন জানিয়ে বলা হয় আগামী ১২ ঘন্টার মধ্যে নিয়ম মেনে হোক মধ্যপ্রদেশ বিধানসভার আস্থাভোট। এহেন আবেদনে সাক্ষর করেছেন মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান সহ ৯ জন বিধায়ক। অন্যদিকে, বিজেপির শিবরাজ সিংয়ের তরফে আগেই দাবি করা হয়েছে কমল নাথের দাবি মেনে স্পিকার এন পি প্রজাপতি আস্থাভোট পিছিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা শুরু করেছেন। আর এটাই বাস্তবায়িত হল।

উল্লেখ্য, মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া কংগ্রেস ত্যাগের পর তাঁর সঙ্গে নিয়ে গিয়েছেন কংগ্রেসের ২২ জন বিধায়ককে ঘটনার জেরে সংখ্যার বিচারে মধ্যপ্রদেশে সংখ্যালঘু কংগ্রেস। যদিও কমল নাথ দাবি করেছেন বিধানসভায় এখনও সংখ্যাগরিষ্ঠতা দেখিয়ে দেবেন তিনি। এহেন সময়ে রাজ্যপালের নির্দেশমতো এদিন বিধানসভায় আস্থাভোটের আয়োজন করা হলে তুলুল হট্টগোল শুরু করেন কংগ্রেস বিধায়করা। যার জেরে আস্থাভোট বাতিল করার পাশাপাশি আগামী ২৬ মার্চ পর্যন্ত মুলতুবি করে দেওয়া হয়েছে বিধানসভা অধিবেশন। এরপরই শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হলেন বিজেপি নেতারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here