kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: একুশের বিধানসভা ভোটে লড়ার সবরকম প্রস্তুতি এখন থেকেই সেরে রাখতে চাইছে বঙ্গ বিজেপি। কিন্তু প্রস্তুতিপর্বে বড় বাধ সেধেছে বিধানসভা পিছু নেতা বা মুখের অভাব। যা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই দুশ্চিন্তায় রয়েছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের মূল মাথাব্যথা, রাজ্যের প্রতিটি কেন্দ্র পিছু প্রার্থী করার মতো সদস্য খোঁজা। কেননা পদ্মশিবিরের পক্ষে সমর্থন থাকলেও স্থানীয় নেতা তৈরি না হওয়ার কারণে দেখা যাচ্ছে সিঁদুরে মেঘ। এর মধ্যে একটি স্বাধীন সংস্থা দ্বারা বঙ্গের প্রতিটি কেন্দ্রভিত্তিক সমীক্ষা করিয়েছে বিজেপি। সেখানে যা ফলফল উঠে এসেছে তা আশা আরও বাড়িয়েছে দিলীপ-মুকুলদের।

ঘটনা হচ্ছে, লোকসভা ভোটে পশ্চিমবঙ্গে একেবারে ১৮টি আসন পাওয়ার পর অনেকটাই আশাব্যাঞ্জক হয়ে উঠেছে বিজেপি। লোকসভার ফলাফলের ভিত্তিতে দেখা গিয়েছিল, রাজ্যে বিজেপি এগিয়ে রয়েছে কমপক্ষে ১২০টি আসনে। কিন্তু সম্প্রতি সমীক্ষা চালিয়ে চোখ আরও চকচক করে উঠেছে মুকুলদের। বিজেপি সূত্রে খবর, স্বাধীন সংস্থার এই সমীক্ষায় তাদের পক্ষে ১৬৫টি আসন রয়েছে ইতিমধ্যেই। যা একুশে গেরুয়া শক্তিকে ক্ষমতায় নিয়ে আসার জন্য যথেষ্ট। কিন্তু এর মধ্যেই একটা ‘কিন্তু’ রয়েছে। সেটা হল, মুখ্যমন্ত্রীর জন্য একজন আদর্শ মুখ এবং রাজ্যওয়াড়ি বিধানসভায় নেতাদের অভাব। মুখ্যমন্ত্রীর মতো আদর্শ মুখ নির্বাচনের পরে ঠিক করা গেলেও স্থানীয় স্তরে নেতা তৈরি না হলে ক্ষমতা দখলের স্বপ্ন অধরাই থাকতে পারে, আশঙ্কা রয়েছে এমনটাও।

সেই কারণেই এবার নতুনভাবে ভাবনা-চিন্তা শুরু করেছে বিজেপি। সূত্রের খবর, প্রত্যেক বিধানসভা পিছু একজন করে প্রার্থী তৈরি করার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। উপযুক্ত প্রার্থীদের দলের সামনের সারিতে নিয়ে এসে আন্দোলনের মুখ হিসেবে গড়ে তুলতে চায় বিজেপি। এরপর নির্বাচনের সামনে গিয়ে বিজেপি তাঁদের কর্মদক্ষতা খতিয়ে দেখে, তাদের মধ্যে থেকে একজনকে বেছে নেবে। আর যদি না কাউকে চূড়ান্ত করা যায় তবে কী করা হবে সেই সিদ্ধান্ত শীর্ষ নেতারাই নেবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here