bengali news kolkata

Highlights

  • পুরভোটে শোভনের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চাইছে বিজেপি, কিন্তু বাধা এক ‘তৃতীয় ব্যক্তি’
  • এই ‘তৃতীয় ব্যক্তি’ রাজ্যসভার সাংসদ হওয়ার ‘আবদার’ জানিয়েছেন শীর্ষ নেতৃত্বকে
  • তিনি একেবারে দাঁড়িয়ে আছেন শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বঙ্গ বিজেপির মাঝে

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সামনেই পুরভোট। তার আগে ‘অভিজ্ঞ’ মুখের খোঁজে রাজ্য বিজেপি। সভাপতি হিসেবে দিলীপ ঘোষের ওপর দ্বিতীয়বার ভরসা রেখেছে দল, কিন্তু পুরভোট নিয়ে বেশি সতর্কতা দেখাচ্ছে গেরুয়া শিবির। রাজ্যে সাংগঠনিক কৃতিত্ব দিলীপকে দিলেও কোনও এক অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ব্যক্তির সাহায্য নিতে উদ্যোগী রাজ্য বিজেপি। সেক্ষেত্রে তাদের বাজি যে অবশ্যই প্রাক্তন তৃণমূলী শোভন চট্টোপাধ্যায় তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু এই শোভনকে নিয়ে তো বিতর্কের শেষ নেই। এখন আবার এক ‘তৃতীয় ব্যক্তি’র খপ্পরে পড়েছে বাংলার পদ্ম শিবির।

গতবছর ঘটা করে শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিল্লি নিয়ে গিয়ে বিজেপিতে যোগদান করানো হয়েছিল। কিন্তু ওই যোগদানই সার, বিজেপির হয়ে রাজ্যে কোনওরকম প্রচার বা মিছিলে দেখা যায়নি তাঁদের। উল্টে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে অন্য অনুষ্ঠানে যোদ দিয়েছিলেন শোভন-বৈশাখী। পাশাপাশি, বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কিছু দিন পরেই দলের বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা গিয়েছিল শোভন বান্ধবীকে। কিন্তু এবার শোভনকে নিয়েই মাঠে নামতে চাইছে গেরুয়া ব্রিগেড। পুরভোট তাঁর সম্পূর্ণ অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে মাত দিতে চাইছে শাসকদল তৃণমূলকে। কিন্তু সমস্যা হয়ে উঠেছেন সেই ‘তৃতীয় ব্যক্তিই’। তিনি একেবারে দাঁড়িয়ে আছেন শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বঙ্গ বিজেপির মাঝে।

সূত্রের খবর, এই ব্যক্তি নাকি রাজ্যসভার সাংসদ হওয়ার ‘আবদার’ জানিয়েছেন শীর্ষ নেতৃত্বকে। স্বভাবতই এই প্রস্তাব মানতে রাজি নয় গেরুয়া শিবিরের বঙ্গ ব্রিগেড। সদ্য দলে যোগ দিয়েই সাংসদ হতে চাওয়ার আর্জি একেবারেই মানতে পারছে না তারা। কিন্তু শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নিয়েও তারা পড়েছে সমস্যায়। শোভনের অভিজ্ঞতা ব্যবহার করতে গেলে তাঁকে সরাসরি দলে প্রয়োজন। কিন্তু এই ‘তৃতীয় ব্যক্তি’র বাধা হয়ে দাঁড়ানোয় বঙ্গ বিজেপির সঙ্গে শোভনের দূরত্ব বাড়ছে। এখন প্রশ্ন হল, যাঁর হাত ধরে শোভন চট্টোপাধ্যায় বিজেপিতে এসেছেন তিনি কি পারবেন তাঁকে দলীয় কাজে সরাসরি যোগ দেওয়াতে? নাকি এই ‘তৃতীয় ব্যক্তি’র আড়ালেই থেকে যাবেন তিনি।

বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরেই শোভন-বৈশাখী চর্চা শিখরে। আরও বিতর্কিত ব্যাপার হল দলে যোগ দেওয়ার পরেই বৈশাখীর দল বিরোধী মন্তব্য। এতে ব্যাপক চাপে পড়ে গিয়েছে বিজেপি শিবির। অন্যদিকে, তৃণমূলও এই গোটা ব্যাপারটার ভীষণ সুবিধা নিতে চেষ্টা করছে। শোভন চট্টোপাধ্যায়ের তৃণমূলে ফেরা নিয়েও বিভিন্ন সময়ে জল্পনা ছড়িয়েছে। কিন্তু প্রত্যক্ষভাবে এই বিষয়ে কোনও পক্ষই মন্তব্য করেনি। তবে এবার বিজেপি পুরোদমে চাইছে শোভনকে নিয়ে বাংলায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে নামতে। তার জন্য তাদের আগে দরকার এই ‘তৃতীয় ব্যক্তি’র সঙ্গে বোঝাপড়ার। অবশ্য এই ব্যক্তি কে হতে পারেন তা মোটেই আলাদা করে বলার অপেক্ষা রাখে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here