gau mutra bjp leader

মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনা ভাইরাস ঠেকাতে বিশ্বের তাবড় তাবড় চিকিৎসক বিজ্ঞানীদের মাথার ঘাম পায়ে পড়ছে। কিন্তু কিছু সংখ্যক বিজেপি নেতারা খুব সহজেই এই ভাইরাসের অব্যর্থ দাওয়াই খুঁজে পেয়েছেন। তা হল গোমূত্র। খাস কলকাতাতেও করোনা প্রতিশেধকের নামে গোমূত্র পান করিয়েছিলেন বিজেপির এক নেতা। এমনকী পুলিশের এক হোমগার্ডকে অন্ধকারে রেখেই তাঁকে সেই গোমূত্র পান করানো হয়েছিল। এই ঘটনা জেরে গ্রেফতার করা হল নারায়ণ চট্টোপাধ্যায় নামকে ওই বিজেপি নেতাকে। এদিন দুপুরে তাঁকে বাড়ি থেকে আটক করে লালবাজারে নিয়ে আসে পুলিশ। এরপর ওই বিজেপি নেতাকে গ্রেফতার করা হয়।

যেহেতু করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়ার জন্য কোনও ‘অ্যান্টি-ভাইরাস’ পাওয়া যায়নি, তাই গোমূত্রকেই মহৌষধি হিসেবে ধরে নিয়েছেন বিজেপি নেতারা। সোমবার উত্তর কলকাতার জোড়াসাঁকোয় এক গোমূত্র পান অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন বিজেপি নেতা নারায়ণ চট্টোপাধ্যায়। সেখানে তিনি দাবি করেন, ‘এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরাস রোখার মতো কোনও ওষুধ পাওয়া যায়নি। বর্তমান পরিস্থিতিতে এই মারণ চিনা ভাইরাসকে একমাত্র রুখতে পারে গোমূত্রই। তাই গোমাতার পুজো করে আমরা সকলে গোমূত্র পান করছি। সবাইকে দিচ্ছি পান করতে।’ এই বলে সবাইকেই গোমূত্র পান করাচ্ছিলেন তিনি। তবে বিতর্ক বাঁধে অন্য জায়গায়। কর্তব্যরত এক পুলিশ কনস্টেবলকেও ‘চরণামৃত’ বলে তিনি ওই গোমূত্র পান করান বলে অভিযোগ ওঠে।

এরপরই ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়। সক্রিয় হয়ে ওঠে লালবাজার। কেননা চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, গোমূত্র পানে কোনও লাভ তো হয়ই না। বরং হিতে বিপরীত হয়ে যেতে পারে। এদিন দুপুরেই ওই বিজেপি নেতার বাড়িতে হানা দেয় পুলিশ। তারপর লালবাজারে নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর গ্রেফতার করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here