মহানগর ডেস্কঃ বিধায়ক হিসেবে শপথ গ্রহণের পর প্রথমবার গিয়েছিলেন নিজের এলাকায়। আর প্রথম দিনেই আলোচনায় উঠে এলেন বিজেপির তারকা নেতা হিরণ চট্টোপাধ্যায়। অভিযোগ, এক সাট্টা কারবারির পাশে দাঁড়াতে তিনি নাকি ছুটে গিয়েছিলেন খড়গপুর টাউন থানায়।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি বিকৃত এবং উস্কানিমূলক মন্তব্য ছড়ানোর অভিযোগে এক বিজেপি কর্মীকে হেফাজতে নেয় পুলিশ। তৃণমূলের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে, মাহিন্দর শঙ্কর নামে এক বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কিত পোস্ট করার পাশাপাশি আরও ৭ জনকে ট্যাগ করা হয়েছিল। তাদের বিরুদ্ধেও মামলা রুজু হয়েছে বলে খবর।

নিজের এলাকায় পা দিয়ে অভিযুক্ত বিজেপি কর্মীর স্ত্রীকে নিয়ে সোজা থানায় হাজির হন হিরণ। সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেছেন, ‘অন্যায় করেছে বলেই তো পুলিশ ধরেছে। অথচ সারা বাংলা জুড়ে বিজেপি কর্মীরা আক্রান্ত হচ্ছে। এই জেলাতেও কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর উপর হামলা হয়েছে। যাঁরা এই রক্তাক্ত হিংসা চালাচ্ছে তাঁদের কতজনকে পুলিশ হেফাজতে নিয়েছে?’

কটাক্ষ করে স্থানীয় তৃণমূলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘বিধায়ক হিসেবে শহরে এসেই উনি থানায় গিয়েছেন এক সাট্টা কারবারিকে ছাড়াতে।’ তৃণমূলের এই দাবি মানহানিকর বলেই জানিয়েছেন হিরণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here