kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: ‘’আগামী দিনে রাজ্যে ‘মডেল কোড অফ কন্ডাক্ট’ চালু হওয়ার পর তৃণমূলের গোড়া কেটে দেবো। আজ আমি দায়িত্ব নিয়ে বলে গেলাম।‘’ বৃহস্পতিবার বিকেলে উত্তর হাওড়ায় এক দলীয় কার্যালয় উদ্বোধন এসে তৃণমূল কংগ্রেসকে এই ভাষাতেই আক্রমণ করলেন বিজেপি নেতা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘’সারা হাওড়া জেলা জুড়ে মাথা দরকার নেই। গোড়া হচ্ছে আসল। যদি গোড়া ওদের আলগা করে দিতে পারি তা হলে গাছ এমনিই পড়ে যাবে। আমার লক্ষ্য গোড়া নড়িয়ে দেওয়া। তার জন্য যা যা করার করব। আপনাদের সকলের সহযোগিতা চাই। নির্বাচনে আমাদের ২০০ সংখ্যা পার করতে গেলে হাওড়া সদরের ৮টি সিটই আমাদের চাই। সেই লড়াই আজকে থেকে শুরু হয়ে গেল।”

এদিন রাজীববাবু আরও বলেন, “আমি একটু খেলতে ভালবাসি। ওয়ার্ল্ড কাপ ফুটবলে ব্রাজিলের মতো। খেলায় ধীরে ধীরে উঠতে হয়। খেলার শেষ মুহূর্তে খেলতে হয়। সাউথ আফ্রিকা হয়ে লাভ নেই। প্রথম থেকে ভাল খেললাম, আর কোয়ার্টার-ফাইনালে এসে বা সেমিফাইনালে এসে হেরে গেলাম। আমরা ধীরে ধীরে ভাল করে খেলব। ফাইনাল খেলা আমাদের লক্ষ্য। সেই খেলায় আমাদের জিততে হবে। খেলার অনেক কৌশল আছে। সেগুলো আগামী দিনে আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করব। আপনারা মনে এমন জোর নিয়ে আসুন, এমন শক্তি সঞ্চয় করুন যাতে আমরা আমাদের লক্ষ্য পূরণ করতে পারি।”

উল্লেখ্য, পেট্রোল, ডিজেল,সহ রান্নার গ্যাসের লাগাতার মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে এদিন ইলেকট্রিক স্কুটির পেছনে চেপে নবান্নে আসেন মুখ্যমন্ত্রী। ফিরেও যান স্কুটি চেপেই। তবে ফেরার সময়ে স্কুটি নিজেই চালিয়ে যান মুখ্যমন্ত্রী। এদিন বিকেলে উত্তর হাওড়ায় বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয়ের উদ্বোধনে এসে মুখ্যমন্ত্রীর এই স্কুটিযাত্রাকে কটাক্ষ করেন রাজীব। তিনি বলেন, দাম বাড়ার প্রতিবাদ করতে হলে রাজ্যের ট্যাক্স কমিয়ে দিলে মানুষের উপকার হবে। এইভাবে কয়েক ঘণ্টা রাস্তা আটকে বহু বাইক ও গাড়ি নিয়ে মিছিল করে কিছুই হবে না। এদিনের অনুষ্ঠানে রাজীব বন্দোপাধ্যায় ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় সিং, বিবেক সোনকার-সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here