kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বীরভূম: বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে নিশানা করে বিস্ফোরক কথা বললেন বিজেপি’র রাঢ়বঙ্গের পর্যবেক্ষক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়। অনুব্রত মণ্ডলের নাম করে তিনি বলেন, ‘এখনও শুধরে যান। না হলে কবে বিকাশ দুবে হয়ে যাবেন তা আমরা জানি না।‘ প্রকারান্তরে অনুব্রত মণ্ডলকে উত্তরপ্রদেশের কুখ্যাত গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের মতো এনকাউন্টার করা হবে বলে হুমকি দিলেন বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যপাধ্যায়। এর পাল্টা হিসেবে জেলা তৃণমূল সুপ্রিমো অনুব্রত মণ্ডল তাকে গরু-ছাগলের সঙ্গে তুলনা করলেন।

রবিবার জেলা বিজেপি’র বোলপুর সাংগঠনিক কর্মসূচিতে আসেন বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন। জেলা তৃণমূল এবং অনুব্রত মণ্ডলকে তিনি নিশানা করেন। রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘বিজেপি যদি এখানে হিংসার রাজনীতিতে নামত, তা হলে ওই নেতা (অনুব্রত) এখানে থাকতেন না। বিজেপি হিংসায় বিশ্বাস করে না। সংবিধান ও মানুষের শক্তির ওপর বিশ্বাস করে। বীরভূমের যে তৃণমূল নেতা রয়েছেন, তিনি একজন ক্রিমিনাল। তার জেলের ভেতরে থাকা উচিত ছিল। তিনি বাইরে বিচরণ করছেন। আমরা ক্ষমতায় এলে তাকে জেলে ঢোকাব। তখন তাকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় কেউ বাঁচাতে পারবেন না। বীরভূমের আদরের কেষ্ট’র যদি হিম্মত থাকে পুলিশকে সরিয়ে আমাদের সঙ্গে লড়ুন। আমরা দেখে নেব তিনি কত বড় নেতা। আর মাত্র ৮ মাস। তারপর তৃণমূলের সর্বনাশ। কেষ্টরও সর্বনাশ। কেউ রুখতে পারবে না। আমরা ক্ষমতায় এলে কাউকে ছাড়ব না। দুর্নীতিগ্রস্ত তৃণমূল নেতা ও পুলিশকে জেলা ঢোকাব। এখনও বলছি, শুধরে যান না। হলে কবে বিকাশ দুবে হয়ে যাবেন জানি না।‘

রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই হুমকি প্রসঙ্গে জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বলেন, কে কী বলল তাতে আমার কিছু যায় আসে না। আমার বয়ে গেল। ওকে আমি হিরো বানাব না। পালে অনেকেই আসে। পালে গরু-ছাগল একসঙ্গে চরে। আবার চরা হয়ে গেলে চলে যায়।‘

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here