ডেস্ক: ১৮ বছরের এক যুবতীকে বিজেপি বিধায়কের ধর্ষণের অভিযোগে উত্তাল উত্তরপ্রদেশের উন্নাও। বিচার চেয়ে মুখ্যমন্ত্রীর যোগী আদিত্যনাথের বাসভবনের সামনে আত্মহত্যারও চেষ্টা করেছিলেন যুবতী। কোনওরকমে তাঁকে সামলায় প্রশাসন। গতকাল পুলিশ হেফাজতে থাকাকালীন মৃত্যু হয় অভিযোগকারী ওই যুবতীর বাবার। সেই ঘটনার জেরে এবার গ্রেপ্তার করা হল ওই বিজেপি বিধায়কের ভাইকে। অভিযোগ, তাঁর সঙ্গে সংঘর্ষের ফলেই মৃত্যু হয়েছে ওই নির্যাতিতার বাবার।

পুলিশ সূত্রের খবর, ধর্ষণে অভিযুক্ত ওই বিজেপি নেতার কুলদীপ সিংহ সেনগারের ভাই অতুল সিংহ সেনগারকে গোপন ডেরা থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে ওই ধর্ষিতার বাবাকে নিগ্রহের অভিযোগ সহ অনিচ্ছাকৃত খুন, অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের মতো একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। উত্তরপ্রদেশে পুলিশের মুখপাত্র রাহুল শ্রীবাস্তব বলেন, ওই বিধায়কের ভাইয়ের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ খতিয়ে দেখেই অতুলকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেন রাজ্যের ডিজিপি ওপি সিং।

মেয়ের ধর্ষণের বিচার চেয়ে প্রশাসনের দ্বারস্ত হয়েছিলেন ধর্ষিতা তরুণীর বাবা। অভিযোগ ওঠে, অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য ক্রমাগত চাপ আসতে থাকে তাঁদের উপর। তারপরও অভিযোগ না তোলায় মেয়েটির বাবাকে বাড়িতে এসে মারধোর করে ওই বিধায়কের ভাই। মেয়েটির অভিযোগ অনুযায়ী, সেই সময় পুলিশ এসে ওই বিধায়কের ভাইকে গ্রেপ্তারের পরিবর্তে গ্রেপ্তার করা হয় তাঁর বাবাকে। এরপর বিভাগীয় হেফাজতে থাকাকালীন রবিবার তলপেটে প্রচণ্ড ব্যাথার কারণে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। সোমবার সেখানে মৃত্যু হয় তাঁর। তবে পরিবারের অভিযোগ, হেফাজতে থাকাকালীন মারধোরের কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তারপরই মৃত্যু হয় তাঁর। এই ঘটনার জেরে দুইজন অফিসার ও চারজন কনস্টেবলকে সাসপেন্ড করেছে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ। সেই ঘটনায় এদিন গ্রেপ্তার করা হল ওই বিধায়কের ভাই অতুল সিংহ সেনগারকে।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের শাস্তির দাবীতে যোগীর বাসভবনের সামনে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ওই তরুণীর পরিবার। অভিযোগ ছিল, গতবছর তাঁকে ধর্ষণ করেন উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ের বিজেপি বিধায়ক কূলদীপ সিং সেনগার ও তাঁর সঙ্গিরা। সেনগার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হলেও কোনও ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ। উল্টে পুলিসি পশ্রয়ে অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর থেকে তাঁর পরিবারকে রীতিমত হুমকি ও তাঁর বাবাকে মারধোর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। তবে সেনগারের দাবি, তাঁকে ও তাঁর পরিবারকে বদনাম করতেই এইসব করছে ওই তরুণী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here