১৮ দিনে অভিভাবকহীন বিজেপি, সুষমাকে স্মরণ করেই শেষ টুইট করেছিলেন জেটলি

0
247

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মাত্র ১৮ দিনের ব্যবধানে দুই স্তম্ভ সমান নেতাকে হারিয়ে ফেলল বিজেপি। ৬ অগস্ট দিল্লির এইমসে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন সুষমা। একই হাসপাতালে এদিন ২৪ অগস্ট দুপুরে প্রয়াত হন অরুণ জেটলি। ভারতীয় জনতা পার্টির জনপ্রিয়তা ও সাংগঠনিক শক্তি এই মুহূর্তে যেই জায়গায় রয়েছে, তাতে সুষমা ও অরুণের প্রয়াণ হয় তো খুব বড় প্রভাব ফেলবে না। কিন্তু ২০০৯ সালে লোকসভা ভোটে বিজেপি পর্যুদস্ত হওয়ার পর রাজ্য সভায় এই সুষমা স্বরাজ এবং অরুণ জেটলিই বিজেপিকে সামলে রেখেছিলেন। টুজি স্পেকট্রাম, কমনওয়েলথ গেমসের মত কেলেঙ্কারি হোক, বা মূল্যবৃদ্ধি। মনমোহন সিংয়ের সরকারকে স্বস্তি দেননি তাঁরা। বিপক্ষ শিবিরে থেকেও অভূতপূর্ব ভাষণ ও ভূমিকা পালন করে প্রশংসাও কুড়িয়ে নিয়েছিলেন তাঁরা।

কিন্তু অরুণ জেটলি ও সুষমা স্বরাজ, এই দুই রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের বৈশিষ্ট্য এবং ব্যক্তিত্বই এমন ছিল যে তাঁদের মন্তব্যের জেরে কোনও অসুবিধায় পড়তে হয়নি বিরোধী দলগুলিকে। দু’জনের মধ্যেই একাধিক সাদৃশ্য ছিল। যেমন পেশাগতভাবে সুষমা ও জেটলি দু’জনেই ছিলেন আইনজীবী। সংসদে দাঁড়িয়ে কপিল সিবাল, অভিষেক মনু সিংভি, রাম জেঠমালানির মত অভিজ্ঞ আইনজীবীদের সঙ্গে বিতর্কেও অংশ নিয়ে থাকতেন তাঁরা। দু’জনের মধ্যে আরও একটা বড় মিল, কেউই আরএসএস ঘরানার রাজনীতিবিদ ছিলেন না। তা সত্ত্বেও বিজেপির হয়ে রাজনীতি করে শীর্ষে পৌঁছে গিয়েছিলেন অরুণ ও সুষমা।

এই দুই রাজনীতিবিদের শূন্যস্থান পূরণ করা সহজ হবে না ভারতীয় জনতা পার্টির জন্য। বিশেষ করেন অরুণ জেটলি এবং সুষমা স্বরাজ যেভাবে বিরোধীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখতেন তা এখনকার রাজনীতিতে বিরল বললেও কম বলা হয়। নরেন্দ্র মোদী সরকারের প্রথম দফায় ‘মা’-এর মতো দেশের বিদেশমন্ত্রক সামলেছিলেন সুষমা। তাঁর মমতা স্পর্শ করেছিল লাখো ভারতীয় এমনকী পাকিস্তানিদের হৃদয়ও। অন্যদিকে অরুণ জেটলিই অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন নোটবন্দি, জিএসটির মতো অর্থনীতিতে সংস্কারমূলক পদক্ষেপ নেওয়া হয়। যার জেরে রেকর্ড জিডিপিতে পৌঁছে যায় ভারতের অর্থনীতি। দু’জনেই শারীরিক অসুস্থতার কারণে চলতি বছর লোকসভা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। তাঁদের অভাব যে ভারতীয় রাজনীতি অবশ্যই প্রত্যক্ষভাবে বুঝতে পারবে। একই সঙ্গে বিজেপিও যেন মাত্র ১৮ দিনের ব্যবধানেই কার্যত অভিভাবকহীন হয়ে পড়ল।

প্রসঙ্গত, চলতি মাসের ৭ অগস্ট প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজকে হারানোর পরই শোকপ্রকাশ করে শেষ টুইট লিখেছিলেন অরুণ জেটলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here