ডেস্ক: কিছুদিন আগেই হিন্দু-পাকিস্তান মন্তব্য করে দেশজুড়ে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন শশী থারুর। এরপরই ফের একবার ‘বিজেপির হিন্দুত্ব’কে তুলোধোনা করলেন কংগ্রেসের এই সাংসদ। তিনি বলেন, ‘হিন্দু ধর্মে তালিবান প্রথা শুরু করে দিয়েছে বিজেপি।’

মঙ্গলবার কেরালার তিরুবন্তপুরমে কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুরের দপ্তরের সামনে কালো পতাকা নিয়ে বিক্ষোভ দেখান বিজেপির যুব সদস্যরা। এরপরই বিজেপির উপর যারপরনাই ক্ষিপ্ত শশী টুইটারে তোপ দাগেন বিজেপির বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, ‘‌আপনারা কি আমায় পাকিস্তানে চলে যেতে বলছেন। আমি আপনাদের মত হিন্দু নই এবং আমার এ দেশে থাকার অধিকার নেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার আপনাদের কে দিয়েছে? হিন্দুধর্মে তালিবান প্রথা শুরু করে দিয়েছেন আপনারা।’ ওইদিন শশী থারুরের দপ্তরের উপর হামলাও চালিয়েছিল বিজেপি কর্মীরা। সেই প্রসঙ্গেও বিজেপিকে এখাত নিতে ছাড়েননি তিনি। তাঁর কথায়, ‘‌যুবমোর্চাবিজেপি তিরুবন্তপুরমে আমার সংসদীয় দপ্তরে ভাঙচুর চালায়। দপ্তরের সাইন বোর্ড, দরজা, জানলা, দেওয়ালে কালো তেল দিয়ে লেপে দেয়। সেইসময় সাধারণ মানুষ তাঁদের আবেদন নিয়ে আমার দপ্তরে এসেছিলেন। সেই সময় তারা আমায় পাকিস্তানে চলে যাওয়ার স্লোগান দেন। কিন্তু বিজেপি আমার কিছু সহজ প্রশ্নের উত্তর দিক। আপনারা কী হিন্দু রাষ্ট্রের স্বপ্ন দেখছেন?‌ এভাবে ভাঙচুর এবং হিংসাত্মক ঘটনা ঘটিয়ে সেই স্বপ্ন পূরণ হবে না। তিরুবন্তপুরম আজ দেখল বিজেপির আসল চেহারা। হিন্দুদেরও দাবি, এ ধরনের সংঘ গুণ্ডা আমাদের প্রতিনিধি হতে পারে না।’

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহেই বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দাগতে গিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন শশী থারুর। তাঁর মন্তব্য ছিল, ‘২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের পর যদি বিজেপি ফের ক্ষমতায় আসে তাহলে ধীরে ধীরে হিন্দু পাকিস্তানে পরিণত হবে ভারত। দেশের মানুষকে চোখের জলে ভাসাবে এই গেরুয়া দল। নতুন নিয়ম জারি করবে এই দেশে এরপরই শশীকে ঘিরে শুরু হয় বিক্ষোভ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here