ডেস্ক: দিনকয়েক আগেই গুরুতর দুর্ঘটনার সম্মুখীন হয়েছিলেন। সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই এবার খুনের হুমকি পেলেন সংবিধান বদলে দিতে চাওয়া বিজেপি নেতা অনন্ত কুমার হেগড়ে। কর্ণাটকের এই বিজেপি নেতা ও সাংসদের অভিযোগ, কেউ তাঁকে বারবার ফোন করে হত্যা করার হুমকি দিয়ে চলেছে। যদিও কে বা কারা এই কাজ করছে তা নিয়ে নিশ্চিত নন তিনি। প্রাণ হারানোর ভয়ে ইতিমধ্যেই পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন হেগড়েবাবু।

অনন্ত হেগড়ের অভিযোগ, রবিবার গভীর রাতে প্রথমে তাঁর ব্যক্তিগত নম্বরে ফোন আসে। এরপর আসে তাঁর বাড়ির ল্যান্ডলাইন নম্বরে। দু-একবার ফোনে কেউ কোন কথা না বললেও পরে কেউ বলে ওঠে, ‘তোমার শরীর টুকরো টুকরো করে কেটে ফেলব। নিজেকে কি তুমি বিরাট নেতা বলে মনে করো? মাথা কেটে ফেলব তোমার।’ এই ফোনের পরই পুলিশের দ্বারস্থ হন অনন্ত কুমার হেগড়ে। ভারতীয় দণ্ডবিধি ৫০৪ ও ৫০৭ ধারায় অভিযোগ দায়ের করে ইতিমধ্যেই তদন্তে নেমে পড়েছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, বিগত কয়েকমাস ধরেই সময়টা মোটেই ভাল যাচ্ছে না হেগড়ের। সবার প্রথম সংবিধান বদলে দেওয়ার মন্তব্য করে বিতর্ক সৃষ্টি করেন তিনি। এরপর বাধ্য হয়ে সংসদে ক্ষমা চাইতে হয় তাঁকে। দিনকয়েক আগে আবার কর্ণাটকে জাতীয় সড়কের উপর দিয়ে যাওয়ার সময় রাত ১২টা নাগাদ দুর্ঘটনার সম্মুখীন হন তিনি। সে যাত্রায় তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন যে তাঁকে হত্যা করার চেষ্টা করা হচ্ছে। ফোনে লাগাতার এই হুমকির ফলে তাঁর আশঙ্কা এবার সত্যি হল বলে মনে করা হচ্ছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here