ডেস্ক: নীতীশ কুমারের নির্দেশে বিহারে সম্পূর্ণরুপে নিষিদ্ধ করা হয়েছে মদ্যপান। এহেন মদমুক্ত বিহারে মদ খাওয়ার অভিযোগে এবার গ্রেপ্তার করা হল ভারতীয় জনতা পার্টির সাংসদ হরি মাঝির পুত্র রাহুল মাঝিকে। যেখানে বিজেপির হাত ধরে লালুকে হঠিয়ে বিহারে ক্ষমতায় এসেছেন জেডিইউ নেতা নীতীশ কুমার। সেই বিজেপি সাংসদের পুত্রকে মদ খাওয়ায়র অভিযোগে গ্রেপ্তার করায় চাঞ্চল্য ছড়াল পাশের রাজ্যে। শুধু তাই নয় এর প্রভাব পড়েছে বিহার রাজনীতিতেও।

সূত্রের খবর, এদিন অভিযুক্ত ওই বিজেপি নেতার পুত্রকে মদ্যপ অবস্থায় বিহারের বুদ্ধ গয়া থেকে আটক করে পুলিশ। পরে স্থানীয় কোর্টে চালান করা হয়। মেডিকেল রিপোর্টে তাঁর রক্তে অ্যালকোহলের উপস্থিতি পাওয়া গিয়েছে। কোর্টের নির্দেশে অভিযুক্ত রাহুল মাঝিকে জেল হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। কারন বিহারে মদ্যপ অবস্থায় কোনও বিজেপি পরিবারের কোনও সদস্যের গ্রেপ্তার হওয়া এই প্রথম। স্বাভাবিকভাবে মদমুক্ত বিহারে মদ্যপ অবস্থায় কোনও সাংসদ পুত্রের গ্রেপ্তার হওয়ায় প্রশ্নের আঙুল উঠছে নীতীশ কুমারের দিকেও।

তবে এই ঘটনায় রাজনৈতিক চক্রান্ত দেখছেন পার্লামেন্টের বিজেপি সাংসদ হরি মাঝি। তিনি জানান, রাজনৈতিক অভিসন্ধি লাভের উদ্দেশ্যে চক্রান্ত করে ফাঁসানো হয়েছে তাঁর ছেলেকে। রাহুল মদ খায়নি, ওই এলাকায় একটি ঝামেলার মীমাংসা করতে গিয়েছিল সে। সেখানেই ফাঁসানো হয়েছে তাঁকে। যদিও বিজেপি সাংসদের এই বক্তব্য মানতে নারাজ বিহারের বাসিন্দারা। কারণ, মেডিকেল রিপোর্টে তাঁর মদ্যপ থাকার প্রত্যক্ষ্য প্রমাণ মিলেছে। উল্লেখ্য, বিহারে মদ নিষিদ্ধ হওয়ার পর এখনও পর্যন্ত সেখানে গ্রেপ্তার করা হয়েছে লক্ষাধিক মানুষকে। সেই ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের দিকে। এবার মদ খাওয়ার অভিযোগে শাসক দলের পুত্র গ্রেপ্তার হওয়ায় নতুন করে প্রশ্নের আঙুল উঠল নীতীশের দিকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here