ডেস্ক: ‘বিহারেও অশান্তি হয়েছে কিন্তু তা ভালো ভাবেই সামলেছেন নীতীশ কুমার। কিন্তু এখানে প্রশাসনের উপর নিয়ন্ত্রণ নেই সরকারের। এখানকার সরকার দিল্লিতে ব্যস্ত থাকেন।’ গোষ্ঠীসংঘর্ষে উত্তপ্ত রানিগঞ্জ, আসানসোলের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে রবিবার সেখানে গিয়েছেন বিজেপির ৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল। এলাকা ঘুরে দেখার পাশাপাশি, সাংবাদিকদের সামনে রাজ্যসরকারের বিরুদ্ধে এভাবেই তোপ দাগলেন বিজেপি সাংসদ শাহনওয়াজ হুসেন।

রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে এদিন শাহনওয়াজ হুসেন বলেন, ‘শান্তির জন্য আমরা এখানে এসেছি। এখানে যা হচ্ছে তা ভীষণ অন্যায় হচ্ছে। সরকার কোনও নজর দিছে না এই সমস্ত এলাকাগুলিতে। মমতাজি দিল্লিতে লাঞ্চ ও ডিনার নিয়েই ব্যস্ত রয়েছেন। প্রশাসনের উপর তাঁর কোনও রকম নিয়ন্ত্রণ নেই। বিহারেও অশান্তি হয়েছে কিন্তু তা ভালো ভাবেই সামলেছেন নীতীশ কুমার। এখানে কোন সম্ভব হচ্ছে না আসলে এখানকার সরকারের উদ্দেশ্য ভালো নয়।’

উল্লেখ্য, আসানসোল, রানিগঞ্জে ১৪৪ ধারা জারি থাকার জন্য বিজেপির প্রতিনিধি দলকে ওই এলাকায় যেতে দেওয়া হবে না বলে প্রাথমিক ভাবে মনে করা হলেও। তাদের যাওয়ার পথে সেভাবে কোনও বাধা দেয়নি প্রশাসন। এদিন দুপুর ১২ টা নাগাদ আসানসোলে পৌঁছয় ৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল। যেখানে ছিলেন সাংসদ ওম মাথুর, শাহনওয়াজ হোসেন, বিহারের প্রাক্তন পুলিস প্রধান বি. ডি. রাম, সাংসদ রূপা গাঙ্গুলি। এছাড়াও সঙ্গে ছিলেন বিজেপির একাধিক নেতাকর্মী। তাঁদের নিরাপত্তার জন্য দলের সঙ্গে ছিল ৪০ টি গাড়ির কনভয়।

আসানসোল পৌঁছে এদিন প্রথমেই তাঁরা যান আরসিপি কলোনির একটি শিবিরে। যেখানে গোষ্ঠী সংঘর্ষে আক্রান্তদের রাখা হয়েছে। সেখান থেকে দলটি যায় রামকৃষ্ণ ডাঙাল এলাকায়। সেখানকার স্থানীয় মানুষের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ ধরে কথা হয় তাঁদের। সেখান থেকে চাঁদমারি হয়ে আসানসোল শহরে প্রবেশ করে দলটি। তবে যাত্রা পথে চাঁদমারি এলাকায় গাড়ি থেকে নামেননি তাঁরা। এখান থেকে দিল্লি ফিরে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহকে বিস্তারিত রিপোর্ট দেবে এই প্রতিনিধি দল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here