kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, চুঁচুড়া: লোকসভা নির্বাচনে জেলার তিনটি আসনের মধ্যে দুটি আসনে শাসক দল জয়ী হলেও একটি আসনে তাদের গদির গণেশ গিয়েছে উল্টে। সেখানে জয়ী হয়েছে বিজেপি। আর সেই লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যেই ছিল বহু চর্চিত সিঙ্গুর বিধানসভা কেন্দ্রটি। যে সিঙ্গুর থেকে আন্দোলন করে ৩৪ বছরের বাম শাসনের অবসান ঘটিয়ে বাংলার মসনদ দখল করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সিঙ্গুরেও এবার প্রায় ১০হাজার ভোটে বিজেপির থেকে পিছিয়ে পড়েছে তৃণমূল। এই যখন অবস্থা ঠিক তখন এই সিঙ্গুর ব্লকেরই বাসুবাটি গ্রাম পঞ্চায়েতে ক্ষমতাসীন তৃণমূল বোর্ডের বিরুদ্ধে এবার দুর্নীতি আর কাটমানির অভিযোগ তুলে বিক্ষোবে নেমে পড়ল গেরুয়া শিবির।

শুক্রবার তৃণমূল পরিচালিত বাসুবাটি গ্রাম পঞ্চায়েতে ব‍্যাপক দুর্নীতির বিরুদ্ধে ও কাটমানি ফেরতের দাবি সহ একাধিক ইস‍্যুতে পঞ্চায়েত অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখাল বিজেপি। বাসুবাটি গ্ৰাম পঞ্চায়েতের কার্যালয়ের সামনে হাতে পোষ্টার নিয়ে, জয় শ্রীরাম ধ্বনি দিয়ে এদিন বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি কর্মী ও সমর্থকরা। পরে তারা পঞ্চায়েতে ডেপুটেশনও দেয়। বিজেপির হুগলি জেলা সাংগঠনিকের সাধারন সম্পাদক মধুসূদন দাস বলেন, এই পঞ্চায়েতের একাধিক সদ‍স্য বিভিন্ন দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত। একশো দিনের কাজে প্রচুর কাটমানির নিয়েছে বিভিন্ন তৃণমূলের নেতা কর্মীরা। একশো দিনের কাজের ক্ষেত্রে তৃণমূলের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বর অভিযোগ তোলেন মধুসূদনবাবু। সেই সঙ্গে আবাস যোজনাতে অনেক নেতারা কাটমানি নিয়েছেন বলে তিনি অভিযোগ করেন।

kolkata bengali newsঅন্যদিকে বাসুবাটি গ্ৰাম পঞ্চায়েতের প্রধান এই বিষয়ে কিছু বলতে চাননি। তৃণমূল পরিচালিত সিঙ্গুর পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য নঈম সরকার অবশ্য বলেন, বিরোধীরা একাধিক বিষয়ে আমাদের কাছে যে ডেপুটেশন দিয়েছে তা নিয়ে সন্তোষজনক আলোচনার পর তারা চলে গেছে। তাছাড়া ওনারা কাটমানি নিয়ে কোন ডেপুটেশন দেননি বলেও তিনি জানান। একশো দিনের কাজ যাতে সবাই সমানভাবে পায় তা নিয়ে বিরোধীদের সঙ্গে সন্তোষজনক আলোচনা হয়েছে, ওরা শান্তিপূর্নভাবে এখান থেকে চলে গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here