dilip ghosh

নিজস্ব প্রতিবেদক, বারাসত: পুলিশের বিরুদ্ধে হাবড়ায় ফের গর্জালেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। একই সঙ্গে হাবড়া থানা জ্বালিয়ে দেওয়া সহ দিলেন আরও একগুচ্ছ হুমকি।

পঞ্চায়েত ভোট ও তার পরবর্তী সময়ে বিজেপি কর্মীদের উপর বিনা প্ররোচনায় হিংসার অভিযোগ এনে শুক্রবার হাবড়া দেশবন্ধু পার্ক এলাকা থেকে বিশাল মিছিল করেন দিলীপ ঘোষ। দুপুর দুটো নাগাদ এই মিছিলের পর হাবড়া থানার সামনে তাঁর নেতৃত্বে বিক্ষোভ দেখায় গেরুয়া শিবিরের নেতা কর্মীরা। পুরুলিয়ার বলরামপুরে দলীয় কর্মী ত্রিলোচন মাহাত খুনের পর শুক্রবার রাজ্যজুড়ে থানা ঘেরাও করার কর্মসূচী নেয় বিজেপি। বিক্ষোভের জন্য বিশাল পুলিশ-বাহিনী মোতায়ন করা হয়েছিল আগে থেকেই।

এদিন প্রশাসনের বিরুদ্ধে শাসকদলের হয়ে কাজ করার অভিযোগ তোলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। তিনি বলেন, শাসকদলের হয়ে কাজ করে বিজেপি কর্মীদের হেনস্থা করছে পুলিশ। দলের কর্মীরা খুন হচ্ছেন এবং তাতে প্রশাসন মদত দিচ্ছে। পুলিশ নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করছে না বলেও জানান দিলীপবাবু। বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, কার বাড়িতে বাচ্ছা হয়েছে আর কে হাতে তালি দেন। সিপিএম ও কংগ্রেসকেপ একহাত নেন তিনি। সভাপতির বক্তব্য, সিপিএম ও কংগ্রেস জোট করেও তৃতীয় হয়েছে। কিন্তু বিজেপি একা লড়েই দ্বিতীয় হতে পেরেছে।

এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলে উঠে আসে পেট্রোল ডিজেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রসঙ্গও। তখন দিলীপ ঘোষ বলেন, দাম বেড়েছে আবার কমে যাবে অপেক্ষা করুন। বিরোধীদের কাছে এখন কোন ইস্যু নেই বলে এই নিয়ে পথে নেমেছে। এদিন বিজেপির থানা ঘেরাও কর্মসূচীর ফলে বিশাল যানযট সৃষ্টি হয় যশোর রোডে। প্রায় অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে যান চলাচল।

অন্যদিকে আজ বিজেপির বিক্ষোভ কর্মসূচীর পর সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন তৃণমূল কংগ্রেস মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। দিলীপ ঘোষকে একহাত নিয়ে পার্থবাবু বলেন, উনি ভোটের ফলে হতাশ হয়ে এসব কথা বলছেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here