ডেস্ক: নির্বাচন প্রক্রিয়া শেষ হলেও সরকার গঠন নিয়ে সংকটের মুখে মেঘালয়। নাগা পিপলস ফ্রন্ট্রের (এনপিপি) নেতা টিআর জেলিয়াং নির্বাচনের পর থেকে বেঁকে বসেছেন। তিনি জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে তিনি পদত্যাগ করবেন না। কারণ তিনি সাফ জানিয়েছেন, প্রাপ্ত ভোট দ্বারা সরকার গঠনের ক্ষমতা এবং সুযোগ তাদের রয়েছে। ফলে নির্বাচন শেষ হয়ে গেলেও, সরকার গঠনের ক্ষেত্রে নতুন করে সাংবিধানিক সংকটের মুখে নাগাল্যান্ড।

অন্যদিকে সোমবার এনপিএফের তরফে জানানো হয়েছে, ভোটের আগেই রাজ্যপালকে এনপিপি ও জেডিইউ-র জোটের বিষয়টি চিঠি দিয়ে জানিয়েছিল তারা। এখন সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমানের জন্য উঠেপড়ে লেগেছে জেলিয়াং শিবির। অন্যদিকে বিজেপির সঙ্গে এনপিএফের জোট নিয়ে নতুন করে বিতর্কের সূচনা হয়েছে। নতুন মন্ত্রীসভা গঠন না হওয়া পর্যন্ত পুরানো মুখ্যমন্ত্রী দায়িত্বে থেকে কাজ চালাতে পারেন। এমন ঘোষণার পরই নড়েচড়ে বসেছে উত্তর-পূর্বের বিজেপি শিবির। অসমের বিজেপি নেতা ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার দাবি, বিজেপির সঙ্গে এনপিএফ-এর জোট শেষ হয়ে গিয়েছে। বর্তমানে এনডিপিপির সঙ্গে জোট বেঁধেছেন তারা।

অন্যদিকে, হিমন্তের দাবির পাল্টা দিয়ে এনপিএফের আরেকটি সূত্র দাবি জানাচ্ছে, এখনও বিজেপির সঙ্গে জোট বদ্ধ রয়েছে তারা। ফলে বিজেপির সঙ্গে আদৌ এনপিএফের জোট রয়েছে কি না সেই নিয়ে শুরু হয়েছে দ্বন্দ্ব। বিজেপির তরফে আবার নতুন করে দাবি করা হয়েছে, এনডিপিপির সঙ্গে মিলে বিজেপি জোটের সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন রয়েছে। তাই তাদের সরকার গঠন করতে দেওয়া উচিত বলে দাবি বিজেপির। সব মিলিয়ে নির্বাচনের পরেই তীব্র সাংবিধানিক সংকটের মুখে উত্তর-পূর্বের পাহাড়ি রাজ্য নাগাল্যান্ড।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here