ডেস্ক: সামনে পঞ্চায়েত নির্বাচন। ভোটের প্রচারে যেন কোনও রকম খামতি না থাকে, সেই কারণে রাজ্য পঞ্চায়েত নির্বাচনের মুখ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত মুকুল রায়কে নির্বাচনী প্রচারের জন্য কেন্দ্রের তরফে বরাদ্দ করা হল হেলিকপ্টার। পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রচারের জন্য খুব শীঘ্রই রাজ্যে আসছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। রাজ্যে নির্বাচনের মূল সৈনিকদের প্রচারের পথে যাতে কোনও অসুবিধা না হয় তাঁর জন্য হেলিকপ্টারের ব্যবস্থা করলেন অমিত শাহ। তবে এই সুবিধা শুধুমাত্র মুকুল রায়ের জন্যই নয়, এই সুবিধা পাচ্ছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

বিজেপি সূত্রে খবর, সম্প্রতি দিল্লি গিয়েছিলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। সেখানেই অমিত শাহ নিজের উদ্যোগে এই বন্দোবস্ত করে দিয়েছেন। তাঁদের জন্য যে হেলিকপ্টার বরাদ্দ করা হয়েছে এই খুশির খবর শোনার পরই প্রচারের দিনপঞ্জী তৈরিতে জোর লাগিয়েছেন বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব। বিজেপি সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী, পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রথম পর্যায়ে ব্লক ধরে জনসভা করবেন উচ্চ নেতৃত্ব। প্রতিদিন গড়ে পাঁচ থেকে ছয়টি করে যাতে বিজেপির শীর্ষ স্থানীয়দের দিয়ে প্রচার করানো যায় সেই বিষয়টি দেখছে তাঁরা। সেই শীর্ষ স্থানীয়দের তালিকায় রয়েছেন মুকুল রায়, দিলীপ ঘোষ, রাজ্য বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়, ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেব সহ অন্যান্য নেতৃত্বরা।

উল্লেখ্য, গত ২০১১ বিধানসভা নির্বাচনে প্রথমবার তৎকালীন বিরোধী নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখা গিয়েছিল হেলিকপ্টারে করে নির্বাচনের প্রচার করতে। তারপর দেশের একাধিক জায়গায় ভোটপ্রচারের জন্য বিজেপি নেতৃত্বকে দেখা গিয়েছে হেলিকপ্টারে চড়তে। তবে রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচনে সেভাবে কোনও নেতাকে প্রচারের জন্য হেলিকপ্টার ভ্রমণ করতে দেখা যায়নি। কেন্দ্রীয় শীর্ষ নেতৃত্বের সহায়তায় সেই মিথ এবার ভাঙবে বিজেপি। ট্রেন বা চার চাকার তুলনায় হেলিকপ্টার নিঃসন্দেহে অনেক কম সময়ে পৌঁছে যাওয়া যাবে নির্দিষ্ট গন্তব্যে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here