Parul

মহানগর ডেস্ক: ধর্মনিরপেক্ষতার চ্যাপ্টারগুলি সরিয়ে দিয়ে স্কুলের সিলেবাসের গৈরিকীকরণ করতে চায় বিজেপি। এমনই অভিযোগ করলেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। তাঁর অভিযোগ যেসব রাজ্যে বিজেপির শাসন রয়েছে, সেসকল রাজ্যে ধর্মনিরপেক্ষতা সম্পর্কিত সকল চ্যাপ্টারকে বরাবর বাদ দিতে চেয়েছে তারা। সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গল্প বাদ দিয়ে রামদেব ও যোগীর লেখা অনুচ্ছেদের অন্তর্ভুক্তি প্রসঙ্গে এই কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

ads

তাঁর বক্তব্য, “শিক্ষার গৈরিকীকরণ করতে চায় বিজেপি। যদি তারা কবিগুরুর গল্প বাদ সিয়ে থাকে তাহলে তা তাদের প্রতিক্রিয়াশীল চিন্তাধারারই বহিঃপ্রকাশ। রবীন্দ্রনাথ একজন ধর্মনিরপেক্ষ মানুষ ছিলেন, যা তাঁর কাজ দেখলেই বোঝা যায়। তাঁর আদর্শের সঙ্গে বিজেপি মোটেই স্বাচ্ছন্দ্য নয়। তাই রবীন্দ্রনাথের গল্প পাঠ্যতালিকা থেকে বাদ দেওয়া হচ্ছে।”

ব্রাত্য আরো বলেন, “তারা পুরাণকে ইতিহাস বানিয়ে উত্তরপ্রদেশ ও গুজরাটের শিক্ষার্থীদের পড়াচ্ছে।” পশ্চিমবঙ্গ ও বিজেপি শাসিত শিক্ষাব্যবস্থার তুলনা টেনে এনে তিনি বলেন, “অপরদিকে বাংলার শিক্ষা সবসময় পরস্পরের প্রতি সহানুভূতি, সহিষ্ণুতা শেখায়। প্ৰকৃত ইতিহাস, বিশ্ব চিন্তা এবং দেশাত্ববোধেরও শিক্ষা দেয়।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here