kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: গত রবিবার মালদায় গুলিবিদ্ধ হয়েছিলেন এক বিজেপি প্রার্থী। এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বিজেপি অভিযোগ করে বলে, তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা লাগাতার তাদের দলের কর্মীদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। এরই মধ্যে এই জেলায় এবার গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেলেন এক বিজেপি কর্মী। মাত্র ২৫ বছর বয়সী ওই যুবকের নাম রাজেশ মণ্ডল। সাতটা গুলি লাগে তার। কালিয়াচক থানার শাহবাজপুর গ্রামে বাড়ি রাজেশের।

​বিজেপির অভিযোগ, রাজেশকে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা গুলি করে খুন করেছে। যদিও এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। তাদের তরফে বলা হয়েছে, এই খুনের পেছনে তৃণমূলের কোনও হাত নেই। পুলিশ তদন্ত করলেই জানা যাবে খুনের আসল কারণ।

​জানা গিয়েছে, গতকাল রাতে বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর আর ফেরেননি রাজেশ। এরপর তাঁর খোঁজ শুরু হয়। সারা রাত তাঁর সন্ধান পাওয়া যায়নি। পরদিন অর্থাৎ আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়ি থেকে বেশ কিছুটা দূরে একটি বাঁশ বাগানে পড়ে থাকতে দেখা যায় রাজেশের দেহ। দেখা যায় গোটা শরীর ঝাঁঝরা করে দেওয়া হয়েছে গুলিতে। ঘটনার খবর পেয়ে কালিয়াচক থানার পুলিশ এসে মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। খুনের অভিযোগ দায়ের করেছে রাজেশের পরিবার। পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

​তিন দিন আগে বিজেপি প্রার্থীর পর এবার দলীয় কর্মী গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে গেরুয়া শিবির। তাদের দাবি, এই জেলায় জমি হারিয়ে তৃণমূল সন্ত্রাসের রাজনীতির আশ্রয় নিচ্ছে। যদিও বিজেপি তোলা সেই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। তাদের দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের কোনও যোগ নেই। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করলে জানা যাবে আসার কারণ কী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here