kolkata news
Parul

 

ads

নিজস্ব প্রতিনিধি: হাইকোর্টের আদেশে ভোটের ফলাফল পরবর্তী হিংসার কারণে বাড়িঘর ছাড়া বিজেপি কর্মীদের বাড়ি ফেরানোর কাজ চলছে গত প্রায় ১ সপ্তাহ ধরে। শনিবার পূর্ব বর্ধমান জেলার খণ্ডঘোষ, বর্ধমান দক্ষিণ, মেমারি এবং মাধবডিহির ঘরছাড়া বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের বাড়ি ফেরাতে এলেন হাইকোর্টের বিজেপির লিগ্যাল সেলের আইনজীবী প্রিয়াংকা টিবরেওয়াল এবং বিজেপির রাজ্য কোষাধ্যক্ষ ডঃ সায়র ধনননিয়া। এদিন বিজেপির জেলা অফিসে থাকা বিজেপির খণ্ডঘোষ এলাকার প্রায় ৩৮জনকে তাঁরা বাড়ি ফিরিয়ে দিলেন। একইসঙ্গে বাকি থানা এলাকার ঘরছাড়াদেরও তাঁরা এদিন বাড়ি ফিরিয়ে দেন।

প্রিয়াংকা টিবরেওয়াল জানিয়েছেন, ভোটের ফলাফলে একটি দল জিতেছে। তাই বলে অন্য দলের ওপর অত্যাচার হবে কেন? এটা গণতন্ত্র নয়। এব্যাপারে তাঁরা হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট ঘরছাড়াদের সম্পূর্ণভাবে পুলিশি নিরাপত্তায় বাড়ি ফেরানোর নির্দেশ দিয়েছে। তিনি আরও জানিয়েছেন, বাড়ি ফেরানোর পরও যদি বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের ওপর কোনওরকম অত্যাচার হয় তা হলে সংশ্লিষ্ট সেই থানার ওসি, আইসি, জেলা পুলিশ সুপারদের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে তাঁরা এফআইআর দায়ের করবেন। যদিও তিনি জানিয়েছেন, গত এক সপ্তাহ ধরে তিনি অন্যান্য জেলায় যাঁদের বাড়ি ফিরিয়ে দিয়েছেন তাঁরা এখনও পর্যন্ত কেউই আক্রান্ত হয়নি। তাঁরা বিশ্বাস রাখছেন পুলিশ যথাযথ কাজ করবেন।

এদিন বিজেপির জেলা কমিটির সহ সভাপতি প্রবাল রায় জানিয়েছেন, ২ মে-র পর থেকে পূর্ব বর্ধমান জেলায় খণ্ডঘোষ, রায়না, বর্ধমান উত্তর, বর্ধমান দক্ষিণ, মেমারি, জামালপুর, মাধবডিহি, গলসি, আউশগ্রাম-সহ একাধিক থানা এলাকায় বিজেপি কর্মীদের ওপর তৃণমূল সন্ত্রাস চালিয়ে তাদের ঘরছাড়া করে দিয়েছে। জায়গায় জায়গায় তাদের জরিমানা করা হয়েছে। বাড়ি ঘরে লুটপাট চালানো হয়েছে। এব্যাপারে তাঁরা থানাওয়ারি ঘরছাড়াদের তালিকা তৈরি করে রাজ্য দফতরেও পাঠিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here