নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা:  লক্ষ্য ২১–এর বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে আন্দোলনে গতি আনতে, শাখা সংগঠনগুলিকে চাঙ্গা করতে চাইছে বিজেপি। ইতিমধ্যেই এই মর্মে জেলায় জেলায় শুরু হয়ে গিয়েছে বিজেপির শাখা সংগঠনগুলির নানা কর্মসূচি। এবার আরও একধাপ এগিয়ে ৬ অক্টোবর নবান্ন ঘেরাও অভিযান কর্মসূচির ডাক দিল বিজেপির যুব মোর্চা। তার আগে ২৯ সেপ্টেম্বর বিকাশ ভবন ঘেরাও করবে যুব মোর্চা। এই দুই কর্মসূচির নেতৃত্বে থাকবেন বিজেপির যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ।

বিজেপির অভিযোগ, রাজ্যজুড়ে একাধিক সরকারি অফিসে নিয়োগের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা নেই। সব ক্ষেত্রেই দেখা গেছে দ্বিচারিতা। এছাড়াও একাধিক সরকারি দফতরে শূন্যপদ রয়ে গিয়েছে। এই সমস্ত সমস্যার সমাধানের দাবিতে আগামী ৬ অক্টোবর নবান্ন ঘেরাও অভিযান নেওয়া হয়েছে বলে জানান বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতি।

অন্যদিকে, নবান্ন অভিযানের আগে ২৯ সেপ্টেম্বর বিকাশ ভবন ঘেরাও করবে বিজেপি’র যুব মোর্চা। এই প্রতিবাদ বিক্ষোভ রাজ্য জুড়ে বেকারত্ব বৃদ্ধির বিরুদ্ধে বলে জানান হয়েছে মোর্চার তরফে। এছাড়াও শিক্ষক নিয়োগে স্বচ্ছতা সহ একাধিক দাবি এই ঘেরাও কর্মসূচির অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই যুব মোর্চার নতুন কমিটি গঠন হয়েছে। প্রথমে সেই কমিটির তালিকা নিয়ে রাজ্য বিজেপির অন্দরে অসন্তোষ থাকলেও পরে কেন্দ্রীয় হস্তক্ষেপে তা মিটমাট হয়ে যায়। নতুন কমিটির তালিকা অনুমোদন পাওযার পরেই জেলায় জেলায় সক্রিয় হতে দেখা গিয়েছে যুব মোর্চাকে। ইতিমধ্যেই যুব মোর্চা সভাপতি সৌমিত্র খাঁ- র নেতৃত্বে বিজেপি জেলায় জেলায় একাধিক ইস্যুতে আন্দোলন শুরু করেছে। এবার আরও একধাপ এগিয়ে, নবান্ন ঘেরাওর মধ্যে দিয়ে সরকার বিরোধী আন্দোলনকে আরও বৃহত্তর রূপ দেওয়ার চেষ্টা করছে রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here