মহানগর ডেস্ক: রবিবার ব্রিগেডের সভা থেকে বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা করলেন জম্মু-কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী তথা ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা ওমর আবদুল্লা। শুভেন্দুকে ‘বোকা এবং রুচিহীন মানুষ’ বলে টুইটারে তোপ দাগেন তিনি।

রবিবার ব্রিগেডের সভা থেকে দাঁড়িয়ে শুভেন্দু বলেছিলেন পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় ফিরলে, এই রাজ্য কাশ্মীর হয়ে যাবে। এই বক্তব্যেরই কঠোর নিন্দা করেন ওমর। তিনি টুইট করে লেখেন, ‘বিজেপি নেতাদের কাছে তো ২০১৯ সালের আগাস্ট মাসের পর থেকে কাশ্মীর স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়েছে। তাহলে পশ্চিমবঙ্গ যদি কাশ্মীর হয়ে যায় এতে সমস্যার কী আছে? যাইহোক, বাঙালিরা কাশ্মীর ভালবাসে এবং বহু বাংলার মানুষ কাশ্মীর ঘুরতে আসেন। তাই শুভেন্দুর এই বক্তব্যকে আমরা ক্ষমা করে দিলাম।’

 

শুভেন্দুর এই বক্তব্যকে ভোটের থেকে নজর ঘোরানোর ‘কৌশল’ বলেই মনে করছে শাসক শিবির। প্রাক্তন তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা এবং মন্ত্রী, অধুনা বিজেপি নেতা শুভেন্দু এর আগেও বহুবার এমন বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে দক্ষিণ কলকাতার বেহালায় এক র‍্যালি থেকে তিনি বলেছিলেন, ‘তৃণমূল কংগ্রেস রাজ্যকে গ্রেটার বাংলাদেশ করার চক্রান্ত করছে।’

এরপরেই রবিবার ব্রিগেডে দাঁড়িয়ে শুভেন্দু বলেছিলেন, ‘আমি জানি না কখন দার্জিলিং সুইজারল্যান্ড হবে, কিংবা কলকাতা লন্ডন হয়েছে কি না কিন্তু আমি এইটুকু জানি তৃণমূল কংগ্রেস আবার ক্ষমতায় ফিরলে এই রাজ্যের হাল কাশ্মীরের মতন হয়ে যাবে। আর কাশ্মীরি পণ্ডিতদের মতো হাল হবে রাজ্যের মানুষের।’

এছাড়াও ফুরফুরা শরীফের মৌলবি আব্বাস সিদ্দিকির বিরুদ্ধেও তোপ দাগেন শুভেন্দু। বাম এবং কংগ্রেস সবসময় ‘তোষণের রাজনীতি’ করে চলেছে বলে অভিযোগ করেন এই বিজেপি নেতা।

এই প্রসঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র ডেরেক ও’ব্রায়েন বলেন, ‘রাজ্যের আসল বিষয়গুলো থেকে নজর ঘোরাতেই বিজেপির এইধরনের কথা বলছে। রাজ্যের স্বাস্থ্য,শিক্ষা,সামাজিক নানান সুযোগ সুবিধা,কর্মসংস্থান ইত্যাদি নিয়ে তাঁরা কথা বলেন না। শুধু সাম্প্রদায়িক কথাই বলে যেতে পারে বিজেপি। এই ধরনের কথা মোদি-অমিত শাহের বহুদিনের নীতি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here