ডেস্ক: অবশেষে দীর্ঘ ২০ বছরের কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় দোষী সাব্যস্তের পর কারাদন্ড হল সলমন খানের। যোধপুর কোর্টে আজ দুপুর দুটো নাগাদ রায় দেয়। রায়ে জানানো হয়েছে এই মামলায় পাঁচ বছরের কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। অপরদিকে এই একই মামলায় সইফ আলি খান,সোনালি বিন্দ্রে,টাব্বু,নিলাম এরা চারজনে বেকসুর খালাস হয়েছেন ইতিমধ্যেই। যোধপুর আদালতের বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট দেবকুমার খাতরি বৃহস্পতিবার এই রায় দেন।

কিন্তু জামিনের জন্য আবেদন জানিয়েছেন তাঁর আইনজীবিরা। আগামীকাল সেই শুনানি হওয়ার কথা। কিন্তু এদি রাতটা জেলেই কাটাতে হবে সলমানকে । তাই এদিন যোধপুর সেন্ট্রাল জেলে নিয়ে যাবা হবে তাঁকে। সেখান থেকে উচ্চ আদালতে লড়াই চালাতে পারেন তিনি। কিন্তু এখন সলমনকে জেলে যেতেই হবে। এই মামলার চূড়ান্ত পর্বের শুনানি শুরু হয়েছিল গত বছরের ১৩ অক্টোবর। সাক্ষীদের বয়ান পেশ করা হয়। ২৪ মার্চ পুরো সওয়াল-জবাব শেষ হয়। এদিন এই মামলার পূর্নাঙ্গ নির্দেশ দেয় বিচারপতি। ১৯৯৮ সালে হাম সাথ সাথ হে সিনেমার শুটিং চলাকালীন রাজস্থানের কঙ্কনি গ্রামে ছিলেন সলমান খান। সেখানেই কৃষ্ণসার হরিণ শিকার করেন বলে অভিযোগ। সেই মামলায় আজই দোষী সাব্যস্ত হয়ে জেলে যেতেই হচ্ছে সলমনকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here