নিজস্ব প্রতিবেদক, বর্ধমান: উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন এক তৃণমূল নেতার উদ্যোগে রক্তদান শিবিরে সকাল থেকে বেপরোয়া মাইক বাজানোর ঘটনায় ব্যাপক বিতর্ক দেখা দিল বর্ধমান শহরে। যদিও বিভিন্ন জায়গা থেকে এ ব্যাপারে আপত্তি তোলার পর এদিন দুপুর নাগাদ মাইক্রোফোনের আওয়াজ কমিয়েও দেওয়া হল।

রবিবার বর্ধমান শহরের রসিকপুর মাঠে স্থানীয় তৃণমূল নেতা আসরাফউদ্দিন ওরফে বাবুর উদ্যোগে আয়োজিত হয় ১০ম বর্ষ স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবিরের। আসরাফ উদ্দিন জানিয়েছেন, গত বছর ১০ বছর ধরে তিনি এই রক্তদান শিবিরের আয়োজন করছেন। এই সময়ে বিভিন্ন ব্ল্যাড ব্যাঙ্কে রক্তের আকাল দেখা দেয়। তাই এই সময়টাকেই তাঁরা বেছে নিয়েছেন। এবছর এক হাজার মানুষ স্বেচ্ছায় রক্তদান করেছেন। যাদের মধ্যে প্রায় ২৫০জন মহিলা বলে তিনি দাবীও করেছেন।

এদিকে, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন মাইক বাজিয়ে সকাল থেকে রক্তদান শিবিরের আয়োজন করার ঘটনায় বিভিন্ন মহল থেকে তীব্র আপত্তি জানানো হয়। খবর যায় প্রশাসনিক আধিকারিকদের কাছেও। আর তারপরই এদিন দুপুর নাগাদ মাইক্রোফোনের আওয়াজ রীতিমত কমিয়ে দেওয়া হয়। ঘটনার কথা স্বীকারও করেছেন আসরাফউদ্দিন। তিনি জানিয়েছেন, মাইক বাজানো নিয়ে আপত্তি আসার পরই তিনি মাইক্রোফোনের আওয়াজ কমিয়ে দেবার ব্যবস্থা করেন। তিনি জানিয়েছেন, এত বিশাল আয়োজনের জন্যই মাইক্রোফোনের প্রয়োজন ছিল। সুষ্ঠভাবে রক্তদান শিবিরকে পরিচালনা করার জন্যই মাইক্রোফোন ব্যবহারের অনুমতি নেওয়া হয়েছিল। উল্লেখ্য, এদিন বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সহ কালনা ও কাটোয়া ব্ল্যাড ব‌্যাঙ্কেও এই রক্ত দান করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here