kolkata news
Highlights

  • অবৈধ ভাবে হুগলি নদী পারাপারের সময় স্রোতের টানে উল্টে গেল একটি যাত্রিবাহী নৌকা
  • স্থানীয় মাঝিদের চেষ্টায় ৯ জনকে উদ্ধার করা গেলেও এখনও নিখোঁজ রয়েছেন এক মহিলা যাত্রী
  • সোমবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটে বাউড়িয়া-বজবজ কালীবাড়ি ফেরিঘাটের কাছে


নিজস্ব প্রতিনিধি, বাউড়িয়া:
অবৈধ ভাবে হুগলি নদী পারাপারের সময় স্রোতের টানে উল্টে গেল একটি যাত্রিবাহী নৌকা। স্থানীয় মাঝিদের চেষ্টায় ৯ জনকে উদ্ধার করা গেলেও এখনও নিখোঁজ রয়েছেন এক মহিলা যাত্রী। সোমবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটে বাউড়িয়া-বজবজ কালীবাড়ি ফেরিঘাটের কাছে। নিখোঁজ যাত্রীর নাম প্রিয়াঙ্কা পাইক (১৯)। তার বাড়ি কলকাতার টালিগঞ্জে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার দোল উপলক্ষে এই ফেরি পরিষেবা বন্ধ ছিল। তার পরেও বেআইনি ভাবে নৌকা চলাচল করছিল। তেমনই একটি নৌকায় করে অবৈধ ভাবে বজবজ থেকে বাউড়িয়া আসছিল কলকাতার টালিগঞ্জের নজনের একটি নাচের দল। বাউড়িয়া থেকে ট্রেনে চেপে পূর্ব মেদিনীপুরের মেছেদায় তাদের নাচের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা ছিল। নৌকায় মাঝি-সহ মোট ১০ জন ছিলেন। নৌকা প্রায় মাঝনদীতে এলে স্রোতের টানে এসে পড়ে। পূর্ণিমার জোয়ার হওয়ার নদীতে যথেষ্ট স্রোত ছিল। স্রোতের মুখে পড়ে নৌকা টলমল করতে থাকে। ভয়ে যাত্রীরাও এদিক ওদিক নড়াচড়া করতে শুরু করেন। এরপরেই নৌকাটি উল্টে যায়।

বাউড়িয়া ঘাটের কাছে ছিল কয়েকটি ভুটভুটি। স্থানীয় মাঝিরা দ্রুত ভুটভুটি নিয়ে তাদের উদ্ধারে নেমে পড়েন। কিছুক্ষণের মধ্যেই তারা ওই নৌকার মাঝি-সহ ৯ জনকে উদ্ধার করে। জানা যায়, প্রিয়াঙ্কা পাইক নামে এক মহিলা যাত্রীর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। খবর পেয়ে আসে বাউড়িয়া থানার পুলিশ। তারা উদ্ধার হওয়া যাত্রীদের হাসপাতালে নিয়ে যায়। প্রাথমিক চিকিৎসার পর চিকিৎসকরা তাদের ছেড়ে দেন। নৌকার মাঝিকে আটক করে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here