অপহৃত ছাত্রীর রক্তাক্ত দেহ মিলল জঙ্গল থেকে! উঠল খুন ও ধর্ষণের অভিযোগ

0
26
kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, আসানসোল: টিউশানি পড়তে গিয়ে নিখোঁজ হয়েছিল বছর সাতেরোর স্কুলছাত্রী। তাও দিন তিনেক আগে। এরপর পরিবারের তরফেই নিখোঁজের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল স্থানীয় থানায়। কিন্তু এরপরই এসেছিল নিখোঁজ ছাত্রীর মোবাইল থেকেই এসএমএস। দিতে হবে ১৫লক্ষ টাকা। সেই সঙ্গে বারণ করে দেওয়া হয়েছিল গোটা বিষয়টি যেন পুলিশকে না জানাতে। যদিও পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করে। সেই তদন্ত শুরুর ২৪ঘন্টার মধ্যেই মিলল নিখোঁজ ছাত্রীর রক্তাক্ত মৃতদেহ। ঘটনার জেরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ালো পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল এলাকায়। পাশাপাশি ওই ছাত্রীর পরিবারের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, আসানসোল দক্ষিণ থানার দোমোহণি এলাকার বজরঙ মন্দির লাগোয়া ইসিএলের নতুন আবাসনের বাসিন্দা বলখার সিংয়ের মেয়ে বছর সাতেরোর ওই নাবালিকা গত ১০আগস্ট বিকাল সাড়ে তিনটে নাগাদ টিউশন পড়তে গিয়েছিল। কিন্তু সেদিন রাতে সে আর বাড়ি না ফেরায় তার পরিবারের লোকেরা স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। সোমবার বিকালে ওই ছাত্রীর মোবাইল থেকেই এসএমএস আসে যে তাকে অপহরণ করা হয়েছে। এসএমএসটি এসেছিল বলখার সিংয়ের মোবাইলে। সেই সঙ্গে এটাও জানানো হয়, পুলিশকে এবিষয়ে কিছু জানানো হলে ওই ছাত্রীকে ফেরত পাওয়া যাবে না। মেয়েকে ফেরত পেতে হলে ১৫লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে। যদিও বলখার সিং সমস্ত বিষয়টিই পুলিশকে জানিয়েছিলেন। এরপরেই পুলিশ ধরপাকড় শুরু করলে মঙ্গলবার ভোরে ওই নাবালিকার দেহ আসানসোলের আপকার গার্ডেন অঞ্চলের জঙ্গল থেকে উদ্ধার হয়।

কিন্তু এরপরই ঘটনার জেরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। ওই ছাত্রীর দেহ পুলিশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে আসানসোল জেলা হাসপাতালে পাঠালেও পরে তার দেহ ফেরত নিতে অস্বীকার করে তার পরিবার। তাদের দাবি, ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে ওই নাবালিকাকে। তার দেহে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। যতক্ষণ না অপরাধী ধরা পড়বে ততক্ষণ তারা দেহ ফেরত নেবেন না। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে আসানসোল দক্ষিণ থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here