নিজস্ব প্রতিবেদক, দক্ষিণ ২৪ পরগণা: এক মধ্যবয়সি মহিলাকে কুপিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠল তাঁর সঙ্গীর বিরুদ্ধে। মৃতের নাম মঞ্জু হালদার। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে সোনারপুর সুভাষগ্রামে।

এই ঘটনার পরই গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত যুবককে। পুলিশ সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ঘরের দরজা বন্ধ ছিল মঞ্জুদেবীর। ডাকাডাকি করে সাড়া না পাওয়া গেলে বন্ধ ঘরের দরজা খুলে মহিলার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গলা কাটা অবস্থায় ঘরের মেঝেতে পড়ে ছিল তার দেহ।

এই ঘটনার পর গ্রেফতার করা হয় মৃতার সঙ্গী সন্ন্যাসী দাসকে। তাঁরা স্বামী স্ত্রী পরিচয় দিয়ে দীর্ঘ তিন বছর সোনারপুর সুভাষগ্রামে ঘর ভাড়া থাকতেন। স্থানীয়দের দাবি, ওই মহিলার সঙ্গে মাঝে মাঝেই দেখা যেত ভাঙড়ের বাসিন্দা সন্ন্যাসী দাসকে। সন্ন্যাসী দাসকে সোনারপুর থানার পুলিশ গ্রেফতার করেছে। খুনে ব্যবহৃত ছুরিটিও পুলিশ উদ্ধার করেছে। কী কারণে এই খুন তা জানতে তদন্ত করছে সোনারপুর থানার পুলিশ।