kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, জলপাইগুড়ি: ডুয়ার্সের বুকে গরুমারা ও জলদাপাড়ার জঙ্গলে যে একশৃঙ্গ গন্ডার রয়েছে তা তার খ্যাতি ছড়িয়েছে দেশের পাশাপাশি বিদেশের মাটিতেও। প্রতি বছরই এখানে দেশী বিদেশী মানুষের ভিড় জমে একশৃঙ্গ এই গন্ডার দেখার জন্য। অথচ বিগৎ কয়েক বছর ধরেই সেই গরুমারাতেই বারবার চোরাশিকারিদের হাতে আক্রান্ত হচ্ছে এক শৃঙ্গের গন্ডাররা। এবার সেই গরুমারা সংলগ্ন এলাকাতেই অভিযান চালিয়ে গন্ডারের খড়গ উদ্ধার করলেন বনদফতরের আধিকারিকেরা। সেই সঙ্গে গ্রেফতারও হল দুই পাচারকারীও।

জানা গিয়েছে, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে জলপাইগুড়ি জেলার বনদফতরের চালসা ও লাটাগুড়ি রেঞ্জের পক্ষ থেকে অভিযান চালানো হয় বাতাবাড়ি ফার্ম এলাকায়। সেখান থেকেই দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার হয়। তাদের কাছ থেকেই উদ্ধার হয় খড়গ। বৃহস্পতিবার বিকেলে জলপাইগুড়ি বনবিভাগের চালসা ও লাটাগুড়ি রেঞ্জ যৌথ ভাবে ওই অভিযানে নামে। ধৃতরা কালিংপং জেলার  ঝালং ও বিন্দু এলাকার বাসিন্দা। চালসার রেঞ্জার পল্লব মুখার্জী, লাটাগুড়ির রেঞ্জার শুভ্রশঙ্খ দত্ত, বিট অফিসার জয়ন্ত বিশ্বাস, মনুয়ার হোসেন বৃহস্পতিবার ক্রেতা সেজে বাতাবাড়ি এলাকায় ওই দুই যুবকের থেকে গন্ডারের খড়গ কিনতে যায়। তাদের হাতেনাতে গ্রেফতার করে নিয়ে আসা হয় চালসা রেঞ্জে। ঘটনাস্থলে আসেন জলপাইগুড়ি বনবিভাগের এডিএফও বিমল দেবনাথ সহ মেটেলি থানার ওসি প্রবীর দত্ত। ধৃতদের কাছ থেকে দুটি মোবাইল ফোন, একটি কুকরি, আধার ও ভোটার কার্ড উদ্ধার হয়। ধৃতদের নাম পাসান শেরপা ও সনম তামাং। ধৃতদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, অসমের কোন চোরাশিকারি দলের হয়ে কাজ করে পাসান ও সনম। তাদের কাজ চোরাশিকারিদের হাতে খুন হওয়া গন্ডারের দেহ থেকে তার শৃঙ্গ কেটে নিয়ে তা নির্দিষ্ট স্থানে নিয়ে গিয়ে নির্দিষ্ট ব্যক্তিদের হাতে তুলে দেওয়া। কিন্তু বৃহস্পতিবার তারা বুঝতেই পারেনি যারা ক্রেতা সেজে এসেছে তারা আদতে বনদফতরের আধিকারিক। তাদের কাছে থাকা বাইকের ডিকি থেকেই গন্ডারের ওই শৃঙ্গটি উদ্ধার করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here