বিজেপি’র দখলে থাকা পার্টি অফিস পুনর্দখল করতে এসে বোমা পেল তৃণমূল!

0
bengali news

নিজস্ব প্রতিনিধি, আলিপুরদুয়ার: রাজনৈতিক দলের শ্রমিক সংগঠনের অফিসে মিলল তাজা বোমা! এই ঘটনা নিয়ে তুমুল চাঞ্চল্য ছড়াল আলিপুরদুয়ার জেলার কামাখ্যাগুড়ি এলাকায়। জেলার কামাখ্যাগুড়ি স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠন আইএনটিটিইউসি-র অফিস ছিল। তৃণমূলের অভিযোগ, লোকসভা নির্বাচনের পর এই অফিস দখল করে বিজেপি। মঙ্গলবার এই অফিস পুনর্দখল করতে গেলে অফিসের ভেতরে বোমা নজরে পড়ে তৃণমূলের আইএনটিটিইউসি কর্মীদের।

পরে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। ঘটনাস্থলে কুমারগ্রাম থানার পুলিশ পৌঁছেছে। খবর দেওয়া হয়েছে বম্ব স্কোয়াডকে।
অভিযোগ, অফিস পুনর্দখল করতে এসে তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকরাও আলমারি থেকে বোমা উদ্ধার করেন। বিজেপি অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। তাদের দাবি, বিজেপি কর্মীদের ফাঁসানোর জন্য তৃণমূল নিজেরাই এই বোমা রেখেছে। মিথ্যা অভিযোগ তুলছে বলে জানিয়েছে বিজেপি নেতৃত্ব। জেলা পুলিশ সুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী বলেন, ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। কুমারগ্রাম থানার আইসি ঘটনাস্থলে রয়েছেন।

এই বিষয়ে কামাখ্যাগুড়ি ১নম্বর অঞ্চলের কোর কমিটির সদস্য মিহির নার্জিনারি বলেন, আমরা আজ এলাকায় পার্টি অফিস পুনরুদ্ধারে নামি। এলাকায় বেশ কয়েকটি পার্টি অফিস দখলমুক্ত করি। আমরা তৃণমূলের নেতৃত্ব কামাখ্যাগুড়ি স্টেশন সংলগ্ন পার্টি অফিসে এসে দেখি, এই পার্টি অফিস তালাবন্ধ। এরপর তালা ভেঙে আলমারি খুললে দেখতে পাই, আলমারিতে জলের ড্রামের পাশে তাজা বোমা রাখা রয়েছে। এর পরেই আমরা স্থানীয় প্রশাসনকে খবর দিই। ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে বোমাটি উদ্ধার করে। ২৩ মে- র পর থেকে বিজেপি এই ভাবে সন্ত্রাস চালাচ্ছে। আমাদের প্রশাসনের ওপর পূর্ণ আস্থা আছে। যারা এই ধরনের দুষ্কৃতীমূলক কাজ করছে তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে।

এ বিষয়ে বিজেপি’র আলিপুরদুয়ার জেলার সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব সরকার গোটা ঘটনাটি অস্বীকার করেন। পাল্টা তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেন, পার্টি অফিসটি কখনওই তৃণমূলের ছিল না। বামফ্রন্টের কর্মী-সমর্থকরা আমাদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে সংগঠনে যোগ দেন। তারপর থেকেই ওই পার্টি অফিস বিজেপির দখলে। আজ সকাল সাড়ে ন’টা নাগাদ আমরা পার্টি অফিসে যাই। সেই সময় তৃণমূলের গুন্ডা বাহিনী আমাদের ওপর চড়াও হয়। ঘটনায় একজন গুরুতর আহত হয়েছেন। বর্তমানে তাকে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে চিকিৎসা করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, পার্টি অফিসে বহিরাগতরা বোম রেখে বিজেপির নামে অপবাদ দিচ্ছে। সম্প্রতি তিনটি বিধানসভা আসনে জেতার পর থেকে শাসক দল পুলিশ-প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়ে আমাদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here