স্বশরীরে না হলেও মঙ্গলে আপনার চিহ্ন রেখে আসুন, সুযোগ দিচ্ছে নাসা

0
1162

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সৌর মণ্ডলে পৃথিবীর সবচেয়ে কাছের গ্রহ মঙ্গলের প্রতি মানুষের আগ্রহ কম নয়। যন্ত্র সভ্যতার যুগে যন্ত্রের পাশাপাশি চাঁদে মানুষের পা পড়লেও মঙ্গলে এখনও পা পড়েনি মানুষের। অদূর ভবিষ্যতে তা সম্ভব হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে নাসা। পা না পড়লেও এবার মঙ্গলে গোটা বিশ্বের মানুষের ছাপ ফেলে আসার অনন্য উদ্যোগ নিল আমেরিকার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। স্বশরীরে না হলেও মঙ্গলে এবার পৌঁছে যেতে চলেছে আপনার নাম। তবে যদি আপনি নাসার কাছে মঙ্গলের টিকিট বুকিং করেন।

ইনসাইটের পর দ্বিতীয় দফায় মঙ্গল অভিযানের উদ্যোগ নিয়েছে নাসা। এবার তাদের মিশনের নাম ‘মার্স ২০২০’। ২০২০ সালে নাসায় এই মঙ্গলযান আমেরিকার মাটি থেকে রওনা দিলেও লাল গ্রহে পৌছতে সময় লেগে যাবে প্রায় এক বছর অর্থাৎ ২০২৩। এই উদ্যোগে গোটা বিশ্বকে সঙ্গী করার জন্য অনন্য পদক্ষেপ নিল নাসা। ওই মহাকাশ গবেষণা সংস্থার তরফে টুইট করে নাম এন্ট্রি করার বোর্ডিং পাশ পাঠিয়ে দিয়েছে নাসা। সেখানে নিজের নাম ও প্রয়োজনীয় তথ্য ভরে সাবমিট করতে হবে আপনাকে। সেই নামই ২০২৩ সালে মঙ্গলের মাটিতে পা রাখা রোভারের সিলিকন মাইক্রোচিপে খোদাই করা হবে ইলেক্ট্রনিক রশ্মির সাহায্যে। গোটাটাই লেখা হবে অনুবিক্ষণিক হরফে। অর্থাৎ নাসার অভিযান সফল হলে রোভারের দৌলতে আপনার নাম পৌঁছে যাবে লালগ্রহে। ইতিমধ্যেই নাসার বোর্ডিং পাশে নাম লেখার হিড়িক পড়ে গিয়েছে। প্রায় ৮ মিলিয়ন মানুষ নিজের নাম রেজিস্টার করেছেন এই উদ্যোগে। ২০২০ সালের ১৭ জুলাই নিজেদের মঙ্গল অভিযান শুরু করছে নাসা। মঙ্গলের মাটিতে নাসার রোভার পা রাখবে ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ সালে।

নাসার তরফে জানা গিয়েছে, এই অভিযানে মঙ্গলের মাটিতে কোনও সম্পদ লুকিয়ে রয়েছে কিনা তার তল্লাশি চালাবে নাসা। খুঁজে দেখা হবে মঙ্গলের গহ্বরে লুকানো কোনও জলের স্রোত রয়েছে কিনা। পাশাপাশি, মঙ্গলের আবহাওয়া ও মাটির পুঙ্খানুপুঞ্জ তদন্ত করবে এই মঙ্গলযান। সবমিলিয়ে বিজ্ঞানের পাশাপাশি গোটা বিশ্বের মানুষকে এই অভিযানে সঙ্গী করতে অভিনব পদক্ষেপ নিচ্ছে আমেরিকার এই মহাকাশ গবেষণা সংস্থা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here