ব্রহ্মসের রেঞ্জ বৃদ্ধি, এক চুটকিতে ধ্বংস হতে পারে ইসলামাবাদ! ঘাম ছুটছে পাকিস্তানের

0
990
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: হেলিকপ্টার, বন্দুক দিয়ে নিজেদের অস্ত্রসম্ভার আরও মজবুত করার পাশাপাশি শত্রুপক্ষকে আরও ধরাশায়ী করতে ‘হাউইৎজার’ গোলা কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। একইসঙ্গে আগে থেকে মজুত অস্ত্রসম্ভারেও শান দিতে শুরু করেছে তারা। ভারতীয় অস্ত্রভাণ্ডারে মজুত অত্যাধুনিক ক্রুজ মিসাইল ব্রহ্মসের শক্তি আরও বাড়ানো হল। এবার একে নিক্ষেপ করে সরাসরি উড়িয়ে দেওয়া সম্ভব হবে ইসলামাবাদ!

‘ব্রহ্মস এরোস্পেস’-এর তরফে স্পষ্ট জানানো হয়েছে যে, আগে ব্রহ্মস ৫০০ কিলোমিটার পর্যন্ত আঘাত হানতে পারত, এখন এর অত্যাধুনিক সংস্করণ তৈরি। ভারত এবং রাশিয়ার যৌথ উদ্যোগে তৈরি এই ক্ষেপনাস্ত্রের গতি শব্দের থেকে প্রায় তিনগুণ বেশি হবে বলে জানানো হয়েছে! ব্রহ্মসের এই রেঞ্জ বাড়ানোর ফলে এখন পাকিস্তানের ইসলামাবাদ ভারতের নাগালে চলে এসেছে। সূত্রের খবর, পঞ্জাবের জলন্ধরের সামরিক ঘাঁটিতে এই ক্ষেপনাস্ত্র রাখা হবে, কারণ সেখান থেকে ইসলামাবাদের দুরত্ব প্রায় ৩৫০ কিলোমিটারের কাছাকাছি। ফলে সেখান থেকেই দরকার পড়লে সহজে হামলা চালাতে সক্ষম হবে ভারত। পাশাপাশি আরও জানানো হয়েছে, সমুদ্রে ৩০০ থেকে ৪০০ কিলোমিটার পর্যন্ত যেকোনও জাহাজ মুহূর্তে ধ্বংস করে দিতে পারে ব্রহ্মস। উল্লেখ্য, ভারতই বিশ্বের প্রথম দেশ যে যুদ্ধজাহাজ থেকে দুরপাল্লার মিসাইল ছোড়ার প্রযুক্তি আয়ত্ত করেছে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি জরুরি ভিত্তিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে এই ‘হাউইৎজার এক্সক্যালিবার’ গোলা কিনতে চলেছে ভারত। এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তির গোলা ৫০ কিমি দূরত্বের লক্ষ্যভেদ করতেও সক্ষম। আরও জানা গিয়েছে, জিপিএস নির্ভর এই হাউইৎজার গোলার সংস্করণ শূন্যে বিস্ফোরণ ঘটাতে পারে, তাছাড়া শত্রুপক্ষের বাঙ্কারের ভিতরে প্রবেশ করেও আঘাত হানতে পারে। সুতরাং বোঝাই যায়, একদিকে সীমান্তে জঙ্গিঘাঁটিতে ঢুকে সন্ত্রাসবাদীদের নিকেশ করা যেমন ভারতের হাতের মুঠোয়, অন্যদিকে, দেশে দাঁড়িয়ে পাকিস্তানকে ধ্বংস করাও ভারতের বায়ে হাতের খেলের মতই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here