kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, ভাঙড়: করোনা সন্দেহে হাসপাতালে আনা হ্যেছিল। আর সেই রোগী হাসপাতাল থেকে পালালেন।তাকে হন্যে হয়ে খুঁজছে পুলিশ-প্রশাসন। ভাঙড়ের ওই গৃহবধূর এইভাবে হাসপাতাল থেকে পালানোর ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

জানা গিয়েছে, ভাঙড়ের ঘোজেরমাঠে সৌদি আরব থেকে ফিরে আসা এক ব‍্যক্তির পার্শ্ববর্তী বাড়ির গৃহবধূ আরজিনা বিবি। তিন দিন ধরে সর্দি-জ্বরে ভুগছিলেন। বাড়ি বাড়ি খোঁজখবর নিতে গিয়ে আশাকর্মীদের নজরে পড়ে যান তিনি। তৎক্ষণাৎ করোনা সন্দেহ তাকে তুলে নিয়ে স্থানীয় নলমুড়ি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে আসেন আশাকর্মীরা। নলমুড়ি হাসপাতালের ডাক্তাররা তাকে পর্যবেক্ষণে রাখেন। যদিও হাসপাতলে থাকবেন না বলে ওই মহিলা বায়না ধরেন। প্রাথমিক চিকিৎসায় ওই মহিলার মধ্যে করোনার উপসর্গ লক্ষ্য করে হাসপাতালের দ্বিতলে একটি ঘরে আটকে রাখা হয় তাকে। যদিও বিকালে ওই গৃহবধূ হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান। কীভাবে ওই গৃহবধূ হাসপাতাল থেকে পালালেন, তা খতিয়ে দেখছেন প্রশাসনিক কর্তারা। গৃহবধূর বাড়িতে ভাঙড় থানার পুলিশ গিয়ে তল্লাশি শুরু করেছে।

করোনা সন্দেহ ভাঙড়ের হাসপাতাল থেকে এভাবে রোগী পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় নতুন করে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। ওই গৃহবধূর পার্শ্ববর্তী এলাকার মানুষজন মূলত যারা তার সঙ্গে ওঠাবসা করতেন তাদের চোখমুখে এখন আতঙ্ক আর উৎকণ্ঠা। এ বিষয়ে ভাঙড় ১ নম্বর ব্লকের বিডিও সৌগত পাত্র বলেন, ‘নলমুড়ি স্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকেই করোনা সন্দেহে নিয়ে আসা একজন গৃহবধূ পালিয়েছে। সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়েছে। কী ভাবে তিনি পালালেন তা আমরা খতিয়ে দেখছি। এর পাশাপাশি ওই মহিলার খোঁজ চলছে।‘

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here