kolkata bengali news

ডেস্ক: ভোটের জন্যই অপেক্ষা। ভোট গেলেই কাজ হারাবেন রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ভারত সঞ্চার নিগম লিমিটেড (বিএসএনএল)-এর কয়েক হাজার কর্মী। বুধবার ডেকান হেরাল্ড-এর একটি খবরে প্রকাশ, প্রায় ৫৪ হাজার কর্মীকে ছাঁটাইয়ের প্রস্তাব গ্রহণ করেছে বিএসএনএল বোর্ড।

যদিও এনিয়ে এখনই কোনও চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি বোর্ড। তবে জানা গিয়েছে, নির্বাচনের পর কাজ হারাবেন বিপুলসংখ্যক বিএলএনএল কর্মী। কারণ, সরকার গঠিত একটি এক্সপার্ট প্যানেলের ১০টি প্রস্তাবের মধ্যে তিনটি প্রস্তাব গত মার্চের বোর্ড বৈঠকে গৃহীত হয়েছে। কিন্তু যতক্ষণ না ভোট মিটছে, ততক্ষণ ছাঁটাইয়ের পথে হাঁটছে না টেলিকম বিভাগ। স্বেচ্ছা অবসর প্রকল্প, ছাঁটাই এবং কোম্পানির বিভিন্ন কাজ বন্ধ করা সহ কর্মীদের ঘিরে নানা পরিকল্পনা থাকলেও এখন ভোটের অপেক্ষায় রয়েছে বোর্ড। বিএসএনএল বোর্ড অবসর গ্রহণের বয়সসীমা ৬০ থেকে কমিয়ে ৫৮ করার সুপারিশও গ্রহণ করেছে। অন্যদিকে, ৫০ বছর এবং এর বেশি বয়সের সব কর্মীদের স্বেচ্ছা অবসর গ্রহণের প্রকল্পও নিয়েছে। সেই সঙ্গে বিএসএনএল ৪জি স্পেকট্রাম বরাদ্দের ব্যবস্থাকে আরও সহজ করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে।

জানা গিয়েছে, অবসর গ্রহণের বয়স হ্রাস এবং স্বেচ্ছা অবসর প্রকল্প কার্যকর করা হলে ছাঁটাই হবেন ৫৪ হাজার ৪৫১ জন কর্মী। এখন বিএসএনএলে কর্মীর সংখ্যা এক লক্ষ ৭৪ হাজার ৩১২। এদের মধ্যে কাজ হারাবেন ৩১ শতাংশ কর্মী। অবসর গ্রহণের বয়স হ্রাসের ফলেই ছাঁটাই হবেন ৩৩ হাজার ৫৬৮ জন কর্মী। এর ফলে আগামী ৬ বছরের মজুরি বাবদ ১৩ হাজার ৮৯৫ কোটি খরচ কমে যাবে বিএসএনএলের। উল্লেখ্য, বিএসএনএল ও এমটিএনএল উভয় সংস্থাই কর্মীদের ফেব্রুয়ারি মাসের বেতন দিতে পারেনি। সরকারের কাছে আর্থিক সহায়তা চাইলেও কেন্দ্র এখনও কিছু জানায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here