নিজস্ব প্রতিনিধি : ঘুমঘোরে প্রয়াত হলেন বিশিষ্ট কবি-পরিচালক বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত। আজ, বৃহস্পতিবার সকালে দক্ষিণ কলকাতায় নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। বুদ্ধদেবের প্রয়াণে শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও।

দীর্ঘদিন ধরে কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন বুদ্ধদেব। চলছিল ডায়ালিসিস। এদিনও ডায়ালিসিস হওয়ার কথা ছিল। ভোরে তাঁর স্ত্রী দেখেন, শরীর ঠান্ডা হয়ে গিয়েছে। শরীর নিঃসাড়। বুদ্ধদেবের দুই মেয়ে। মুম্বইয়ে থাকেন।

করোনাবিধির কারণে তাঁরা আসতে পারছেন না। পরিবার সূত্রে খবর, এদিনই শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে বিশিষ্ট এই পরিচালকের। ১৯৬৮ সালে তথ্যচিত্র The Continent of Love দিয়ে চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন বুদ্ধদেব।তাঁর পরিচালিত ছবি চরাচর, মন্দ মেয়ের উপাখ্যান, লাল দরজা, বাঘ বাহাদুর এবং কালপুরুষ জাতীয় পুরস্কার পায়। পুরস্কার না পেলেও তাঁর সৃষ্টি তাহাদের কথাও দর্শক সমাজে সাড়ে ফেলে। পরিচালক হিসেবে নিজেও জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন দুবার। ভেনিস এবং বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসবেও প্রশংসা পেয়েছে তাঁর ছবি।
পরিচালক হিসেবে জগৎ জোড়া খ্যাতির পাশাপাশি কবি হিসেবেও পরিচিত ছিলেন বুদ্ধদেব। কফিন কিংবা সুটকেশ, রোবটের গান, শ্রেষ্ঠ কবিতা সহ বহু কবিতার স্রষ্টা তিনি।
বুদ্ধদেবের প্রয়াণে শোকস্তব্ধ বাংলা। শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিশিষ্ট পরিচালক গৌতম ঘোষ বলেন, বিরাট ক্ষতি হয়ে গেল। ভাবতে পারছি না। আমাকে জোর করে অভিনয় করিয়েছিল। অনেক স্মৃতি ওর সঙ্গে। ওর আত্মার শান্তি কামনা করি। আর এক নামকরা পরিচালক অনীক দত্ত বলেন, শেষ কথা হয়েছিল আমার শেষ ছবির সময়। আশ্চর্য প্রদীপ দেখে বলেছিলেন, আগের ছবির থেকে এটা ভালো হয়েছে। অত্যন্ত বড় মাপের মানুষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here