ডেস্ক: পুলিশের দাবি ছিল গোটা ঘটনা একটা বৃহত্তর ষড়যন্ত্র। কিন্তু পুলিশের সেই দাবি থেকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের দাবি, কোনও খুন নয়। ‘পুরো বিষয়টি নিছকই একটি দুর্ঘটনা’। স্বাভাবিকভাবেই মুখ্যমন্ত্রীর এহেন বয়ানে নতুন করে ছড়িয়েছে বিতর্ক।

গত ৩ ডিসেম্বর উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরের জনরোষে মৃত্যু হয় সুবোধ কুমার সিং নামে এক পুলিশ অফিসারের। সেই ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ গ্রেফতার করে বজরং দলের এক নেতাকে। পাশাপাশি ঘটনার একাধিক ভিডিও নজরে আসে পুলিশের। ভিডিওর সূত্র ধরে এক সেনা জওয়ানকে চিহ্নিত করে পুলিশ। তাঁর গুলিতেই ওই পুলিশ অফিসারের মৃত্যু হয়েছে বলে অনুমান করছেন তদন্তকারীরা। তাঁকে জেরা করার জন্য জম্মু কাশ্মীরে একটি দলও পাঠিয়েছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। একইসঙ্গে ৯ জনকে গ্রেফতার করার পাশাপাশি, ৯০ জনের নামে দায়ের হয়েছে এফআইআর। কিন্তু সব কিছুর পরেও নতুন করে বিতর্ক উস্কে দিলেন যোগী আদিত্যনাথ। বৃহস্পতিবার মৃত পুলিশ অফিসার সুবোধ কুমার সিংয়ের পরিবারের সঙ্গে দেখা করে, তাঁর পরিবারের পাসে থাকার আশ্বাস দেন তিনি। ঠিক তারপরই শুক্রবার লখনউয়ের এক সভায় দাঁড়িয়ে যোগীর মন্তব্য, ‘সুবোধ সিংয়ের মৃত্যু নেহাতই একাটি দুর্ঘটনা, কোনও গণরোষের ঘটনা ঘটেনি।’

উল্লেখ্য, গরুর মৃতদেহকে কেন্দ্র করে গত ৩ ডিসেম্বর উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বুলন্দশহর। পুলিশ পরস্থিতি সামাল দিতে এলে উত্তরপ্রদেশের সিয়ানায় থানায় হামলা করে কমপক্ষে ৪০০ মানুষ। ওই ঘটনায় মৃত্যু হয় সুমিত নামে এক যুবকের। পাশাপাশি গুলিতে মৃত্যু হয় থানার ইনস্পেক্টর সুবোধ কুমার সিংয়ের। একাধিক গাড়ি জ্বালিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। সেই ঘটনাকে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র বলে দাবি করে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। তবে সেখান থেকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে যোগীর দাবি এটি নিছকই একটি দুর্ঘটনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here