মহানগর ওয়েবডেস্ক: হাতে গোনা কয়েক দিন বাকি গণেশ চতুর্থী আসতে। যদিও করোনা ভাইরাসের কারণে সেটাও এবার আগের মতো পালন করা যাবে না। তবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই অনুষ্ঠান উদযাপন করা হবে। শুধু ভারতে নয়, বিদেশেও বহু জায়গায় গণেশ চতুর্থী ধুমধাম করে পালন করা হয়। আসছে গণেশ পূজার কথা মাথায় রেখে বাহারিনের সুপার মার্কেটে বিক্রি হচ্ছিল গণেশের মূর্তি। কিন্তু সেখানে পৌঁছে আচমকাই মূর্তিগুলি মাটিতে ফেলে ভেঙে দেন বোরখা পরিহিত এক মহিলা।

সম্প্রতি এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে ওই দুই মহিলা দাঁড়িয়ে রয়েছেন এবং তাদের পাশে সাজিয়ে রাখা আছে ছোট এবং বড় আকারের গণেশের মূর্তি। কিন্তু দুই মহিলার মধ্যে একজন আচমকাই মূর্তি তুলে মাটিতে আছাড় মারতে শুরু করেন। প্রথমে ছোট তারপর বড় মূর্তিগুলি নীচে ছুড়ে ফেলে মাটিতে মারেন ওই মহিলা। টুকরো টুকরো হয়ে যায় গণেশের মূর্তিগুলি। আরবি ভাষায় ওই মহিলাকে বলতে শোনা যায়, একটা মুসলিম দেশে কেন গণেশের মূর্তি প্রকাশ্যে এভাবে বিক্রি হবে? ওই মহিলা আরও বলেন, এটা মোহাম্মদ বিন ইসার দেশ। আপনার কি মনে হয় তিনি এটা হতে দিতেন? সূত্রের খবর, বাহারিনের রাজধানী মানামা সুপার মার্কেটে এই ঘটনাটি ঘটেছে। পুরো ভিডিওটি সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয় এবং নেটিজেনরা বোরখা পরিহিত ওই মহিলার ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানান।

অভিযোগ পেয়ে বাহারিন পুলিশ ও ওই মহিলার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়। সূত্রের খবর, ওই মহিলার বিরুদ্ধে ধার্মিক ভাবাবেগে আঘাত হানার অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। সৌদি আরবের দেশ বাহারিনে বসবাস করেন প্রায় ১৩ লক্ষ মানুষ। যার মধ্যে চার লক্ষ ভারতীয় বলে জানা যায়। বাহারিনের মোট জনসংখ্যার ৯.৮ শতাংশই আবার হিন্দু। সেই কারণে দীর্ঘদিন ধরেই সেখানে ভারতীয় সংস্কৃতি এবং ভারতীয় রীতিনীতি মেনে পূজা অর্চনা হয়ে আসছে। এবং গণেশ চতুর্থীর কথা মাথায় রেখেই সুপার মার্কেটে গণেশের মূর্তি বিক্রি হচ্ছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here