mamata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে রীতিমতো গত কয়েকদিন ধরেই জ্বলছে অসম। বাংলায় এতদিন বিষয়টি শান্তি বজায় থাকলেও শুক্রবার বিকেল থেকে আগুন জ্বলেছে রাজ্যে। মুর্শিদাবাদ, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা, হাওড়া, দুই মেদিনীপুর-সহ একাধিক জেলায় অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছে পরিস্থিতি। হাওড়ার উলুবেড়িয়া থেকে শুরু করে মুর্শিদাবাদের বেলডাঙ্গা, সর্বত্র বিক্ষোভের আগুন জ্বলছে। এই অবস্থায় গতকালই শান্তি রক্ষার আবেদন জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু তাতে কাজ হয়নি। উল্টে শনিবার রাজ্যের বিভিন্ন অংশে একই ছবি দেখতে পাওয়া যাচ্ছে। কোথাও ট্রেন অবরোধ, কোথাও বা বাসে আগুন। এমতবস্থায় আন্দোলনকারীদের উদ্দেশে কড়া বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন, আন্দোলন যদি আন্দোলনের মত না হয় তবে তা বরদাস্ত করা হবে মা। তাঁর স্পষ্ট কথা, ‘গণতান্ত্রিক পথে আন্দোলন করুন, কিন্তু আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না। পথ অবরোধ, রেল অবরোধ করবেন না। সাধারণ মানুষের ভোগান্তি বরদাস্ত করা হবে না। যাঁরা গন্ডগোল করছেন, রাস্তায় নেমে আইন হাতে তুলে নিচ্ছেন, তাঁদের কাউকে ছেড়ে দেওয়া হবে না। বাসে আগুন লাগিয়ে, ট্রেনে পাথর ছুড়ে, সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করলে, আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

প্রসঙ্গত, বিভিন্ন রেল স্টেশন ভাঙচুরের পাশাপাশি বন্ধ করে দেওয়া হয় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক। পরিস্থিতি যে খারাপ দিকে যাচ্ছে তা আঁচ করে এরপর রাজ্যবাসীকে উদ্দেশে মমতা বলেন, ‘প্রতিবাদ অবশ্যই হোক। তবে সেটা গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে। কেউ আইন নিজের হাতে নেবেন না।’ এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের এডিজি (আইনশৃঙ্খলা) জ্ঞানবন্ত সিং জানান, ‘এমন কিছু হয়নি। দুটো ঘটনা ঘটেছে উলুবেড়িয়ায় ও বেলডাঙায়। তখন আমি মিটিংয়ে ছিলাম। ওখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।’

কিন্তু ক্রমশ ধিকি ধিকি জ্বলতে থাকা এই আগুন যে বঙ্গেও ক্রমশ মারাত্মক আকার নেবে তা হয়তো বুঝে উঠতে পারেননি তৃণমূল নেত্রী। এদিনও একই পরিস্থিতি দেখেই আন্দোলনকারীদের উদ্দেশে এই কড়া বার্তা দিয়েছেন তিনি। বর্তমান অবস্থায় তাঁর এই আবেদন যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ, সেটা কতটা কাজে আসবে তা সময়ই বলবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here