kolkata bengalo news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মানুষের ভোটে জিতে তারপর খেয়ালখুশি মতো অন্যদলে চলে যাওয়া অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক বলে মনে করেন কলকাতা উচ্চ আদালতের বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়৷ সেইসঙ্গে তিনি বনগাঁ পুরসভার আস্থা ভোট নিয়ে অশান্তির জন্য সরাসরি সেখানকার পুরপ্রধান ও তাঁর অনুগামীদের দায়ী করলেন৷ পাশাপাশি বিচারক সাফ জানান, ওইদিন আদালতের নির্দেশ স্বত্তেও পুলিশ নিষ্ক্রিয় ছিল৷ সেইসঙ্গে বৃহস্পতিবার বনগাঁ পুরসভা নিয়ে বিজেপির করা মামলার শুনানি হবে৷ এদিন সব্যসাচী দত্তের মামলার সময় বনগাঁ প্রসঙ্গে কথাগুলি বলেন বিচারক৷ তবে তিনি পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার পাশপাশি কাউন্সিলরদের ইচ্ছামতো দলবদল নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করেন৷

বনগাঁ পুরসভার তৃণমূল কাউন্সিলর হিমাদ্রি মন্ডল ও কার্তিক মন্ডলের বিরুদ্দে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করেছিল শাসকগোষ্ঠী৷ তাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কলকাতা আহইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল বিজেপি৷ হাইকোর্ট ওই দুই বিজেপি কাউন্সিলরকে সাতদিন গ্রেফতার না কারর নির্দে দেয়৷ তবে মঙ্গলবার বিজেপির অভিযোগ তাদের পুরপ্রতিনিধিদের জোর করে আটকে তৃণমূল বনগাঁ পুরসভা দখল করেছেয় যা পুরোপুরি অসাংবিধানিক বলে দাবি করেছে বিজেপি৷

অন্যদিকে তৃণমূলের বক্তব্য তারা পুর আইন মেনেই আস্থা ভোটে জিতেছেন৷ ইবজেপিকে জোর করে আটকে রাখার অভিযোগ স্বাভাবিকভাবেই অস্বীকার করেছেন বনগাঁ পুরসভার শাসক তৃণমূল৷ রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের ধারণা কলকাতা পুরসভার প্রতিনিধিদের সামনে ফের বনগাঁ পুরসভায় আস্থা বোট হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা আছে৷ এই বিষয় নিয়ে চূড়ান্ত রায় বৃহস্পতিবার দেবে কলকাতা হাইকোর্ট৷ সেদিকেই তাকিয়ে এখন রাজ্যরাজনীতির নোতা-নেত্রীরা৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here