kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন হাবড়ার বিজেপি প্রার্থী রাহুল সিনহাকে ৪৮ ঘণ্টা প্রচারে ব্যান করে দেয়। সেই হিসেবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত তিনি প্রচার করতে পারবেন না। কিন্তু, তারপরও কমিশনের নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে তার বিরুদ্ধে প্রচার করার অভিযোগ উঠল। তবে সশরীরে তাঁকে প্রচার করতে দেখা যায়নি। তার রেকর্ড করা বক্তব্য প্রচার করা হয়েছে বিভিন্ন এলাকায়। এই ঘটনা সামনে আসতেই প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল প্রার্থী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক নির্বাচন কমিশনের দারস্থ হবেন বলে জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, শীতলকুচির ঘটনা নিয়ে উস্কানিমূলক বক্তব্য রাখার অভিযোগ উঠেছিল রাহুল সিনহার বিরুদ্ধে। তিনি বলেছিলেন, ‘বাহিনীকে শো-কজ করা উচিত। কারণ বাহিনী আটজনকে না মেরে কেন চারজনকে মেরেছে?’ তার এই বক্তব্য সামনে আসার পর কমিশন তার বিরুদ্ধে ৪৮ ঘণ্টা প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। তার ওপর কমিশনের এই খাঁড়া নেমে আসার পর তিনি বলেছিলেন তাঁকে লঘু পাপে গুরু দণ্ড দেওয়া হয়েছে।

​প্রচারের শেষ লগ্নে তাঁকে ৪৮ ঘণ্টা ব্যান করায় স্বভাবতই বেকায়দায় পড়েন রাহুল সিনহা। তাই নির্বাচন কমিশনের সেই নির্দেশ মানতে তাকে অন্যরকম ভূমিকা নিতে দেখা গেল। সভায় সশরীরে উপস্থিত হয়ে তিনি প্রচার না করলেও তার গলায় রেকর্ড করা বক্তব্য। এলাকায় এলাকায় প্রচার করা হয়েছে। গতকাল তার সমর্থনে উত্তর প্রচারে এসেছিলেন তৃণমূল নেতা শুভেন্দু অধিকারী। সেই সভায় বিজেপি প্রার্থী রাহুল সিনহাকে মঞ্চে না উঠতে দেখা গেলেও মঞ্চের নীচে বসে থাকতে দেখা যায়। তবে রাহুল সিনহা ওই সভাই কেন গিয়েছিলেন, সেই নিয়ে তৃণমূলের তরফে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। বলা হচ্ছে তিনি নির্বাচন কমিশনের নির্দেশকে পাত্তাই দিচ্ছেন না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here