kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি : মাওবাদীদের শর্ত মানলে তবেই মুক্তি দেওয়া হবে পণবন্দি জওয়ানকে। সরকারকে এ কথা জানিয়ে দিল মাওবাদীরা। পুলিশ কর্মী ও জওয়ানদের সঙ্গে তাদের যে কোনও শত্রুতা নেই, তাও স্পষ্ট করে দিয়েছে নিষিদ্ধ ওই সংগঠন।

দিন পাঁচেক আগে ছত্তিশগড়ের সুকমায় মাওবাদীদের সঙ্গে আধা সামরিক বাহিনীর সংঘর্ষে মৃত্যু হয় ২৪ জন জওয়ানের। এক মাওবাদীর দেহও উদ্ধার হয়। যদিও চার মাওবাদীর মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি তাদের। সংঘর্ষে জখম হন ৩১ জন জওয়ান। নিখোঁজ হয়ে যান কয়েকজন জওয়ান। তার মধ্যে একজন তাদের হেফাজতে রয়েছে বলে দাবি মাওবাদীদের। সরকার শর্ত মানলে কোবরা বাহিনীর সেই জওয়ানকেও ছেড়ে দেবে তারা। তবে সেক্ষেত্র মধ্যস্থতাকারীর নাম দ্রুত সরকারকে জানাতে হবে। মাওবাদী নেতা অভয় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, পুলিশ কিংবা জওয়ানদের বিরুদ্ধে লড়াই করছে না তারা। তাদের লড়াই সরকারের বিরুদ্ধে। জারি করা এক বিবৃতিতে অভয় বলে, আমাদের বিরুদ্ধে বন্দুক নিয়ে আক্রমণ হলে আমরাও তৈরি আছি। কারণ আমাদের রাষ্ট্র বিরোধিতা জারি থাকবে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, সেদিন পুলিশের সোর্সকেই কাজে লাগিয়ে কাজ হাসিল করেছিল মাওবাদীরা। জঙ্গলে মাওবাদীরা লুকিয়ে রয়েছে এই খবর সোর্স মারফত পেয়েই জঙ্গলে অভিযান চালানো হয়। তার পরেই তিনদিক থেকে ঘিরে ফেলে শুরু করে আক্রমণ। মাওবাদীদের সম্মিলিত প্রতিরোধের মুখে পড়ে প্রতি-আক্রমণ করে বাহিনীও। তবে তার পরেও শহিন হন ২৪ জন জওয়ান। নিখোঁজ জওয়ানদের খোঁজে জারি রয়েছে তল্লাশি।

তবে এক কোবরা কমান্ডো পণবন্দি জেনে পরবর্তী পদক্ষেপ স্থির করছে সরকার। আপাতত মধ্যস্থতাকারীর নাম জানালেই বন্দি কমান্ডোকে ছেড়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে মাওবাদীরা। এখন দেখার, কবে ছাড়া পান ওই কমান্ডো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here