‘ঠেলায় পড়ে গাছে উঠে’ সাতদিন ঠায় মগডালে বসে রইল বিড়াল!

0
kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি, আলিপুদুয়ার: কথায় বলে, ‘ঠেলায় না পড়লে বেড়াল গাছে ওঠে না’। সেই প্রবাদবাক্যের নমুনা দেখলেন আলিপুরদুয়ারের কুমারগ্রাম এলাকার মানুষ। কুকুরের তাড়া খেয়ে ৭০ ফুট উঁচু গাছে চড়ে বসেছে বেড়াল। হুলো না মেনি তা বোঝা যাচ্ছে না। তবে গাছ থেকে বেড়াল নামাতে হুলুস্থুল কুমারগ্রামে। ডাকা হয়েছে দমকল কর্মীদের।

জানা গেছে, সপ্তাহ খানেক আগে কুকুরের তাড়া খেয়ে কুমারগ্রাম থানার এক শিমুল গাছে উঠে বসে বিড়ালটি। হতভাগা বেড়াল এমন ভয় পায় যে, গাছ থেকে আর নামার সাহস করেনি। প্রায় সপ্তাহ ধরে ওই শিমুল গাছের মগডালেই স্থির বসে আছে। ঘটনাটি স্থানীয়দের নজরে আসে। থানায় জানানোও হয়। কারও ডাকাডাকিতে সাড়া দেয়নি। এমনকী, খাবারের লোভ দেখিয়েও কোনও লাভ হয়নি। ভয়ে খাওয়াদাওয়া ছেড়ে ওই মগ ডালে বসে আছে বিড়ালটি। সকলের চেষ্টাই বিফল। অবশেষে হতাশ হয়ে ডাকা হয় দমকলকে।

গতকাল বারবিষা অগ্নি নির্বাপক কেন্দ্রর কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছন। কিন্তু শিমুল গাছের প্রায় ৭০ ফুট উঁচুতে বিড়ালটি বসে থাকায় তাঁরা ব্যর্থ হন। কত না চেষ্টা, জলের ফোয়ারা দিয়েও তাঁরা বিড়ালটিকে নামাতে পারেননি। রণে ভঙ্গ দিয়ে ব্যর্থ হয়ে ফিরে যেতে হয় দমকলকে। অবশেষে ডাকা হয় কাঠুরেদের। আজ সকালে কাঠুরেরা গাছে উঠে বিড়ালটিকে ধরে ফেলেন। নীচে নামিয়ে আনতেই এক লাফে পগারপার এলাকা থেকে।

কুমারগ্রাম থানার আইসি বাসুদেব সরকার বলেন, বেশ কিছুদিন থেকে আমারা বেড়ালটিকে গাছের ওপরে দেখেছি। তাকে নামানোর বহু চেষ্টা করা হয়। এত উঁচু ডালে থাকায় বেড়ালটি নিজেও হয়তো নামতে ভয় পাছিল। আর ৭০ ফুট উঁচুতে মগডালে বসে থাকায় কেউই নামাতে সম্ভব হয়নি। আজ সকালে স্থানীয় কিছু কাঠুরেদের ডেকে আনা হয়। তারাই গাছে উঠে বেড়ালটিকে নামিয়ে নিয়ে আসেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here