ডেস্ক: সিবিএসই প্রশ্ন ফাঁসের মামলায় ঝাড়খণ্ডের ছাতরা জেলা থেকে এক কোচিং সঞ্চালক ও দুই শিক্ষক সহ ৯ ছাত্রকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃত ছাত্ররা সকলেই নাবালক হওয়ায় তাদের জুভেনাইল হোমে রাখা হয়েছে। বাকি শিক্ষক ও কোচিং সঞ্চালকদের পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় পুলিশ এসপি অখিলেশ বি ওয়ারিওর সংবাদ মাধ্যমকে জানান, শহরের কলেজ রোডে ‘স্টাডি ভিশন’ নামের কোচিং-এ সতীশ পাণ্ডে এবং পঙ্কজ সিং মোটা টাকার বিনিময়ে পড়ুয়াদের হোয়াটঅ্যাপে প্রশ্ন বিলি করেছিলেন।

ছাত্রদের কাছ থেকে পাঁচশ থেকে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত উশুল করা হয়েছিল বলে জানান পুলিশ কর্তা। তিনি আরও জানান, অভিযুক্ত শিক্ষকরা বিহারের রাজধানী পাটনার দুই যুবকের সঙ্গে যোগাযোগ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশ্নপত্র ফাঁস করে দেয়। তদন্তকারী সংস্থা এখনও মামালাটির অন্দরে পৌঁছানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

অন্যদিকে, প্রশ্ন ফাঁস হয়ে যাওয়ায় দ্বিতীয়বার পরীক্ষা ডেকেছে সিবিএসই। সিবিএসসিইর দ্বিতীয় বারের পরীক্ষা বাতিল করার দাবি জানিয়ে আজ দিল্লির রাস্তায় নামে পড়ুয়ারা। পড়ুয়াদের দাবি কেন দ্বিতীয়বারের জন্য পরীক্ষা দিতে হবে তাদের? এই পরীক্ষা দিতে দিতে গেলে তাদের উপর নতুন করে মানসিক চাপ তৈরি হচ্ছে। এই দাবি নিয়েই সিবিএসই দপ্তরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে পড়ুয়ারা।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে পরীক্ষার আগেই হোয়্যাটস অ্যাপে ফাঁস হয়ে যায় দশম শ্রেণীর অঙ্ক প্রশ্ন এবং দ্বাদশ শ্রেণীর অর্থনীতি প্রশ্ন। সেই ঘটনার পর সাড়া পড়ে যায় দেশ জুড়ে। দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে তোপ দাগেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীও। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার কেন্দ্রীয় শিক্ষা সচিব জানিয়ে দেন ২৫ এপ্রিল দেশজুড়ে নেওয়া হবে দ্বাদশ শ্রেণীর অর্থনীতি পরীক্ষা। তবে দশম শ্রেণীর অঙ্ক পরীক্ষা নেওয়া হতে পারে জুলাই মাসে। এবং এই পরীক্ষা নেওয়া হবে শুধুমাত্র দিল্লি, এমসিআর ও হরিয়ানাতে। কবে এই পরীক্ষা হবে তা আগামী ১৫ দিনের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে জানাবে কর্তৃপক্ষ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here