ডেস্ক: কেন্দ্রের নির্দেশে রমজান মাস উপলক্ষ্যে একতরফা ভাবেই এতদিন বন্ধ ছিল সংঘর্ষ বিরতি। আর তারই ফল ভুগতে হয়েছে ভারতীয় সেনাকে। একের পর এক পাক সেনার হামলায় শহিদ হতে হয়েছে ভারতীয় সেনার একাধিক বীর জওয়ানকে। তবে সেই নিয়মকানুনের পর্ব শেষ হচ্ছে শনিবার মধ্যরাতে। তারপরই পাক হামলার যোগ্য জবাব দিতে সচেষ্ট থাকবে ভারতীয় সেনা।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে জানা গিয়েছে, শুক্রবার রাতেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে এই বিষয়ে বিস্তারিত আলচনা করবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। তারপরই হয়ত সরকারিভাবে সংঘর্ষ বিরতি শেষের কথা ঘোষণা হতে পারে। উল্লেখ্য, গত ১৪ মে রমজান মাস উপলক্ষ্যে জম্মু কাশ্মীরে সরকারিভাবে সংঘর্ষবিরতির কথা জানিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। কিন্তু শান্তির সেই বার্তাকেই নিজেদের সুযোগের হাতিয়ার করেছিল পাকিস্তান। সীমান্তে একের পর এক হামলার জেরে শহিদ হন ভারতীয় জওয়ানরা। শুধু পাক হামলা নয়, সমানতালে হামলা চালিয়ে গিয়েছে জঙ্গিরাও। বৃহস্পতিবার এক জওয়ানকে অপহরণ করে খুন করে জঙ্গিরা। এছাড়াও দুই নিরাপত্তারক্ষী সহ খুন হন রাইজিং কাশ্মীর সংবাদপত্রের সম্পাদক সুজাত বুখারি। যার মৃত্যুতে ইতিমধ্যেই তোলপাড় শুরু হয়েছে দেশজুড়ে।

তবে শনিবার মধ্যরাতের পর একতরফা মার খাওয়া থেকে নিস্তার পাবেন সেনা জওয়ানরা। মারের বদলা মার দেওয়ার অনুমতি মিলে যাচ্ছে মধ্যরাতের পরেই। এদিকে, সুজাত বুখারির মৃত্যুর পর জঙ্গিদের বিরুদ্ধে রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়েছেন জম্মু কাশ্মীরের উপমুখ্যমন্ত্রী কবিন্দর গুপ্ত। তাঁর কথায়, জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ফের অভিযান শুরু হবে উপত্যকায়। খুঁজে খুঁজে খতম করা হবে এক একটা জঙ্গিকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here