মহানগর ডেস্কঃ পশ্চিমবঙ্গ সহ একাধিক রাজ্যে করা হয়েছিল নির্বাচন। সব জায়গাতেই ভোটের ফল প্রকাশিত হয়েছে মে মাসের ২ তারিখে। কিন্তু তার আগে প্রবল সমালোচনায় বিদ্ধ হয়েছে নির্বাচন কমিশন। উঠেছে একাধিক প্রশ্ন। কী বলছেন মুখ্য নির্বাচক কমিশনার সুশীল চন্দ্র?

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে তিনি জানিয়েছেন, অতিমারির কারণে নির্বাচন স্থগিত করে দেওয়ার কথা ভাবেইনি কমিশন। নির্বাচনের শেষের দিকে দফা বা ভোট পর্ব ছোটো করে দেওয়ার আর্জি এসেছিল রাজনৈতিক মহল থেকে। নির্বাচন কমিশন সে ব্যাপারে আলোচনা করলেও ভোট প্রক্রিয়া স্থগিত করে দেওয়ার কথা কখনও ভাবা হয়নি।

মমতা বন্দোপাধ্যায় একাধিকবার বলেছিলেন শেষ কিছু দফা যেন ‘ক্লাব’ করে দেওয়া হয়। কংগ্রেসের পক্ষ থেকেও এমন দাবি করা হয়েছিল অন্যান্য রাজ্যে নির্বাচনের ক্ষেত্রে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা করেনি নির্বাচন কমিশন। চন্দ্রর যুক্তি, ভোটের মোট দফার কথা ভেবেই সমস্ত ব্যবস্থা করা হয়েছিল। সেই অনুযায়ী নিরাপত্তা রক্ষী তথা ‘ম্যান পাওয়ার’-এর ব্যবস্থা করা হয়েছিল। একদিনে একাধিক দফার আয়োজন করলে সমস্যা দেখা দিতে পারত।

নন্দীগ্রামে চাপের মুখে পড়তে হয়েছে রিটার্নিং অফিসাররে। সে ব্যাপারে কিছু ভাবছে কমিশন? চন্দ্র জানিয়েছেন, ‘অতীতেও এরকম অভিজ্ঞতা আমাদের রয়েছে। নির্বাচনের পর শাসক দলের পক্ষ থেকে চাপ দেওয়ার একটা প্রথা লক্ষ্য করা যায়। কমিশনের হয়ে যারা মাঠে নেমে কাজ করছেন তারা যাতে কোনও অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সম্মুখীন না হন সে ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন সচেষ্ট।’ তবে ভোট নিয়ে মোটের ওপর তিনি সন্তুষ্ট। বলেছেন, ‘সব মিলিয়ে ভোট হয়েছে শান্তিপূর্ণভাবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here