মহানগর ডেস্ক: দলবদলের হিড়িক লেগেছে টলি পাড়াতেও। একুশের নির্বাচনকে পাখির চোখ করে বিজেপি ও তৃণমূল, উভয়েই তাদের নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে চাইছে টলিউডের সেলিব্রেটিদের হাত ধরে। নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে, পক্ষ নিতে শুরু করেছেন একের পর কলাকুশলীরা। তারকাদের এইধরণের দলবদলকে কটাক্ষ করে নেট দুনিয়ায় সরব হলেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। এদিন তিনি নিজের ফেসবুক পোস্টে লেখেন, “সেল সেল…… সেলেবস্ (মাইন্ড ইউ নোট আর্টিস্টস) অন সেল।”

চৈত্র সেল শুরু হতে এখনও ঢের দেরি। তার আগেই আগেই টলিউডে সেলিব্রেটি সেল প্রসঙ্গে শ্রীলেখার এই পোস্টে সরগরম রাজ্য রাজনীতি। এই পোস্টের বিষয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে এক সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ” এ তো আইপিএল চলছে। যে দল বেশি টাকা দিচ্ছে, সে সেই দলের কাছেই চলে যাচ্ছে। এরা সবাই সেলেব, শিল্পী নন। সেলেবকে কেন যায়, শিল্পীকে কেনা যায়না।” তবে নিজেকে কখনোই বিক্রি করবেন না বলেই জানিয়েছেন শ্রীলেখা।”

কিছুদিন আগেই বিজেপি নেতা অনির্বান গঙ্গোপাধ্যায় দেখা করেন টলিপাড়ার প্রখ্যাত অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে। সেখানেই অনির্বান গঙ্গোপাধ্যায় তাঁর নিজের লেখা বই “অমিত শাহ এন্ড মার্চ অফ দ্য বিজেপি” তুলে দেন বুম্বাদার হাতে। তারপর থেকেই তোলপাড় শুরু হয় রাজ্য রাজনীতি জুড়ে। প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় কি বিজেপি শিবিরে যোগ দেবেন ? এই প্রশ্নে সরগরম টলিপাড়া।

অন্যদিকে গতকালই অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত বিজেপি শিবিরে যোগদান করেন। অভিনেতা হিরণও গেরুয়া শিবিরে যোগদান করেন এদিন। একদা তৃণমূল ঘনিষ্ট রুদ্রনীলও গেরুয়া শিবিরের হয়ে নির্বাচনী প্রচারে নেমেছেন ইতিমধ্যেই। অভিনেতা দীপঙ্কর দে, ভরত কল, থেকে শুরু করে অনেকেই আবার তৃণমূলেই আস্থা রেখেছেন।

এমতাবস্থায় শ্রীলেখা মিত্রের এই বক্তব্যকে যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন নেটিজেনরা। শ্রীলেখার ওই পোস্টের কমেন্ট বক্সে একজন লেখেন, “এতদিন ঘোড়া কেনাবেচা দেখেছি আমরা, এবার এ রাজ্যে সেলেব কেনাবেচা দেখছি।” আর একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, “এ যেন আইপিএলের নিলাম শুরু হয়েছে।” তবে এই দলবদলের হিড়িক থেকে এখনও পর্যন্ত নিজেকে অনেকটা দূরেই রেখেছেন ‘বামমনস্ক’ শ্রীলেখা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here