CM bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: একদিকে রাজ্যপাল অন্যদিকে কেন্দ্রীয় কমিটি। দু’য়ের আক্রমণে চিড়ে চ্যাপ্টা দশা রাজ্য সরকারের। করোনা চিকিৎসায় রাজ্যের বিরুদ্ধে একাধিক অনিময়ের অভিযোগ তুলে এদিন মুখ্যসচিবকে জোড়া চিঠি দিয়েছেন কেন্দ্রীয় কমিটির প্রধান অপূর্ব চন্দ্র। রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় বিভিন্ন খামতির কথা তুলে ধরা হয়েছে তাতে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতদের ডেথ সার্টিফিকেট দেওয়ার ক্ষেত্রে অনেক ফাঁকফোকর রয়েছে বলেও অভিযোগ তোলা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় কমিটির প্রথম চিঠিতে রাজারহাট কোয়ারেন্টাইন সেন্টার ও বাঙ্গুর হাসপাতালের অব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। পাশাপাশি কেন টেস্ট ঠিকমতো হচ্ছে না, তা করতে এত সময়ই বা লাগছে কেন তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। বাঙ্গুর হাসপাতালের কয়েকটি উদাহরণ দিয়ে চিঠিতে কমিটির প্রধান অপূর্ব চন্দ্র লিখেছেন, কয়েকজন রোগী বেশ কিছুদিন ধরে হাসপাতালে রয়েছেন। কিন্তু তাঁদের টেস্ট রিপোর্ট এখনও আসেনি। আবার কয়েকজনের টেস্ট নেগেটিভ হওয়া সত্ত্বেও তাঁরা হাসপাতালে রয়েছেন। সামাজিক দূরত্ব ঠিকভাবে মানা হচ্ছে না এমন অভিযোগও রয়েছে সেই চিঠিতে।

প্রসঙ্গত, দিনকয়েক আগেই সোশ্যাল মিডিয়াতে বাঙ্গুর হাসপাতালের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। সেই ভিডিওতে দেখা যায়, মৃতদেহ হাসপাতাল ওয়ার্ডের মধ্যে পড়ে রয়েছে। চিঠিতে প্রশ্ন তোলা হয়েছে সেই বিষয়টি নিয়েও। জানতে চাওয়া হয়েছে, কেন মারা যাবার পরেও মৃতদেহ অতক্ষণ ধরে হাসপাতালের বেডে অন্য রোগীদের সঙ্গে রেখে দেওয়া হয়েছিল? কেন মৃতদেহ মর্গে কেন চালান করা হয়নি সেই বিষয়েও প্রশ্ন তোলা হয়েছে।

দ্বিতীয় চিঠিতে রাজ্য করোনা মৃত্যুর হিসেব রাখতে যে অডিট কমিটি তৈরি করেছে তা গঠন নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। জানতে চাওয়া হয়েছে, কিসের ভিত্তিতে এই অডিট কমিটি গঠন করা হল? পাশাপাশি রাজ্যের কাছে আরও জানতে চাওয়া হয়েছে, এই ডেথ কমিটি কি আইসিএমআর-র নিয়ম মেনে কাজ করছে এবং তথ্য দিচ্ছে?

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here