kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক:  আজকের উচ্চমাধ্যমিক পরিকাঠামোকে জাদুঘরে পাঠাতে চায় কেন্দ্রীয় সরকার৷উঠতে চলেছে স্কুল স্তরের সব পরীক্ষা! কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তে বদলাতে পারে শিক্ষা কাঠামো৷ নতুন পদ্ধতিতে ‘৫-৩-৩-৪’ কাঠামোয় শ্রেণি ভিত্তিক মূল্যায়ন ব্যবস্থা চালু হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রকের এক কর্তা। ঠিক কেমন এই কাঠামো? এর আগে প্রাথমিক স্তরে হিন্দি ভাষা পড়ানো বাধ্যতামূলক বলে বেশ চাপে পড়ে গিয়েছিল কেন্দ্র৷ দক্ষিণ ভারত কেন্দ্রীয় শিক্ষানীতির তীব্র প্রতিবাদ করেছিল৷ চাপের মুখে এই নীতি থেকে সরে আসতে বাধ্য হয়েছিল মোদী সরকার৷

জাতীয় শিক্ষা নীতি (এনইপি) কমিটির খসড়া প্রস্তাবের সুপারিশ অনুযায়ী, ২০২১ সাল থেকে স্কুল স্তরের যাবতীয় পরীক্ষা তুলে দেবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন (এমএইচআরডি) মন্ত্রক। নতুন পদ্ধতিতে ‘৫-৩-৩-৪’ কাঠামোয় শ্রেণি ভিত্তিক মূল্যায়ন ব্যবস্থা চালু হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রকের এক কর্তা। ২০২০ সালের অক্টোবর মাসে এই শিক্ষানীতি চূড়ান্ত করা হবে এবং ২০২১ সাল থেকে তা বলবৎ করা হবে বলে জানা যাচ্ছে।কেন্দ্রীয় শিক্ষা দফতেরর এক আধিকারিক বলেন,‘কমিটির এই সুপারিশের বিষয়ে বোর্ডগুলিকে তাদের সুপারিশ জানানোর জন্য দ্রুত আমরা বিজ্ঞপ্তি জারি করব। বোর্ডগুলির এবং শিক্ষাবিদদের সুপারিশ পাওয়ার পরই ১০+২ কাঠামো বাতিল করা হবে এবং ২০২১ সাল থেকে নয়া মূল্যায়ন ব্যবস্থা চালু হবে।’

জুন মাসে জাতীয় শিক্ষা নীতি কমিটি খসড়ায় বলা হয়, ‘৫-৩-৩-৪’ কাঠামোর কথা। অর্থাৎ শিক্ষা ব্যবস্থার একদম গোড়া থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষন কালকে চার ভাগে ভাগ করা হয়েছে। প্রাক প্রাথমিকের তিন বছর এবং প্রথম- দ্বিতীয় শ্রেণিকে নিয়ে পাঁচ বছরের ভিত্তিশিক্ষাকালকে চিহ্নিত করা হয়েছে প্রথমে। এরপর তৃতীয় থেকে পঞ্চম শ্রেণিকে প্রস্তুতি পর্ব হিসেবে সুপারিশ করা হয়েছে। ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষাকালকে মধ্যবর্তী দশা হিসেবে দেখা হয়েছে এবং নবম থেকে দ্বাদশ পর্যন্ত মোট চার বছরের ‘সেকেন্ডারি’ স্তর হিসেবে সুপারিশ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here