ডেস্ক: হোয়াটসঅ্যাপকে সতর্কবার্তা কেন্দ্রীয় সরকারের। বেশ কিছুদিন আগে একটি ভুয়ো ম্যাসেজের কারণে দেশ জুড়ে বেশ কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে। তাই হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে যাতে ভবিষ্যতে আর এরকম ঘটনা না ঘটে তাই সেদিকে বিশেষ নজর রাখার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। মঙ্গলবার রাতে কেন্দ্রের তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, হোয়াটসঅ্যাপের মতো বহুল ব্যবহৃত একটি অ্যাপকে ভুলভাল কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। যা অত্যন্ত দুঃখের।

কয়েকদিন আগেই মহারাষ্ট্রের কয়েকজন ব্যক্তির ছবি হোয়াটসঅ্যাপে ছেলেধরা হিসাবে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। আর তারপরই সেখানের গ্রামবাসীরা পাঁচজনকে ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে খুন করে। একই ঘটনা ঘটেছে ত্রিপুরায়। সেখানেও ছেলেধরা সন্দেহে এক ব্যাক্তিকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠেছিল। তবে পরে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়েছে। পাশাপাশি চেন্নাই, আসামেও হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে পড়া ভুয়ো ম্যাসেজকে কেন্দ্র বহু উদ্বেগজনক ঘটনা ঘটছে। যার ফলেই এবার নড়েচড়ে বসেছে কেন্দ্র সরকার। কেন্দ্রের তরফে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষকে কড়া সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছে। সেখানে জানানো হয়েছে এইসব ভুয়ো ম্যাসেজ ছড়িয়ে পড়ার ফলে ঠিক কি ধরনের বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির শিকার হতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।

সতর্কবার্তার পাশাপাশি হোয়াটসঅ্যাপের উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কিভাবে এই ভুয়ো ম্যাসেজগুলোর হাত থেকে রেহাই পাওয়া যায় তাঁর দ্রুত পথ খুঁজে বের করতে হবে। ভারতে ২০০ বিলিয়নের ওপরে মানুষ এই অ্যাপের পরিষেবা নেন। সেখানে যদি এরকম উত্তেজক ম্যাসেজকে কেন্দ্র করে হিংসাত্মক ঘটনা নিয়ত ঘটতে থাকে তাহলে তা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। হোয়াটসঅ্যাপ কোনও ভাবেই নিজেদের দায় এড়িয়ে যেতে পারে না। তাই এই সমস্যার আশু সমাধানের জন্য সরকারের তরফ বিকল্প পথ খোঁজার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষকে।