মহানগর ওয়েবডেস্ক: যাবতীয় বিতর্কর অবসান ঘটে গেল। বাবা রামদেবের পতঞ্জলির করোনা ভাইরাস ‘ওষুধ’ করোনিলকে বিক্রিতে ছাড় দিল কেন্দ্রীয় আয়ুষ মন্ত্রক। যদিও এই ওষুধটিকে করোনাভাইরাসের ওষুধ হিসেবে বিক্রি করা যাবে না। বিক্রি করতে হবে প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি কারী ওষুধ হিসেবে। এই ওষুধ ছাড়াও তিনটি ওষুধ বানানোর জন্য রামদেবের কোম্পানিকে লাইসেন্স দিয়েছে কেন্দ্র।

এই ওষুধ বার করার পরে পতঞ্জলি তরফে বাবা রামদেব দাবি করেছিলেন, এই ওষুধ করোনাভাইরাস রোগীদের চিকিৎসার কাজে লাগবে। এবং ভাইরাস কাবু করতে তা সক্ষম। যদিও সেই নিয়ে তীব্র বিতর্ক সৃষ্টি হয়। মহারাষ্ট্র রাজস্থানের মতো একাধিক রাজ্য এই ওষুধকে নিষিদ্ধ করে। যদিও পরবর্তী সময়ে রামদেব দাবি করেন, এই ওষুধ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। করোনাভাইরাস চিকিৎসায় কাজে আসে না। সেই প্রেক্ষিতে এই ওষুধকে বিক্রিতে ছাড় দিয়েছে কেন্দ্র।

ছাড় দেওয়ার শর্ত হিসাবে স্পষ্টভাবে জানানো হয়েছে, এই ওষুধ কে কোনভাবেই করোনাভাইরাস রোগের ওষুধ হিসেবে বিক্রি করা যাবে না। ওষুধের প্যাকেটে এই করোনাভাইরাস উল্লেখ করা যাবে না। শুধুমাত্র প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারে এমন ভঙ্গিতে ওষুধ বিক্রি করতে হবে। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here