হানগর ডেস্ক: ভোট মিটে যাওয়ার পরেও যেন শান্তির দেখা নেই রাজ্যে, এমনটাই অভিযোগ বিরোধীদের একাংশের। বুধবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শপথ গ্রহণের দিনেই এল কেন্দ্রের চিঠি। জবাব না দিলে দেওয়া হয়েছে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারি।

ভোট পরবর্তী হিংসায় রাজ্যে ১২ জনেরও বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন বলে অভিযোগ বিজেপির। গতকাল রাজভবনেও মমতাকে বিঁধতে ছাড়েননি রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার পর মমতার পাশে দাঁড়িয়ে রাজ্যপাল বলেছিলেন, ‘দলীয় স্বার্থ ছেড়ে মানুষের স্বার্থ পাক অগ্রাধিকার’। শপথ নেওয়ার পর তৃণমূল সুপ্রিমোর মুখেও শোনা গিয়েছিল শান্তির বার্তা। যদিও ২০২১ সালে সরকার গড়ার প্রথম দিনেই গেরুয়া শিবিরকে এক হাত নিয়েছেন তিনি। তাঁর মতে, যে সমস্ত এলাকায় বিজেপি জিতেছে সেখান থেকে মিলেছে সর্বাধিক অশান্তির খবর।  

নির্বাচন পরবর্তী হিংসা নিয়ে তরজার মাঝেই এলো কেন্দ্রের চিঠি। রাজ্যে একাধিক হিংসাত্মক ঘটনার অভিযোগের প্রেক্ষিতে চাওয়া হয়েছে রিপোর্ট। এর আগেও একটি চিঠি এসেছিল নবান্নে। যার উত্তর দেওয়া হয়নি বলেই খবর। তাই দ্বিতীয় চিঠিতে কড়া সুর। বুধবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব অজয়কুমার ভাল্লা রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে ওই চিঠিতে লিখেছেন, রাজ্য প্রশাসন চিঠির জবাব না দিলে তাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হবে। সম্প্রতি রাজ্যপালকে ফোন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here